সাংবাদিক আফজালের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২৬ পিএম, ৩০ মে ২০২১

সময় টিভির সিনিয়র রিপোর্টার আফজাল হোসেনের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে নোয়াখালীতে করা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার ও দুর্নীতিবাজ নাজির আলমগীরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে আইন, বিচার, মানবাধিকার ও সংবিধান বিষয়ক সাংবাদিকদের সংগঠন ল’ রিপোর্টার্স ফোরাম (এলআরএফ) নেতৃবৃন্দ।

রোববার (৩০ মে) সুপ্রিম কোর্টের মূল গেটের সামনে সংগঠনের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা এমন দাবি জানান।

এলআরএফ সভাপতি মো. মাশহুদুল হক মামলার বিষয়ে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘অবিলম্বে এলআরএফের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার না করলে সাংবাদিকদের নিয়ে নোয়াখালীতে দুর্নীতিবাজ নাজিরের অফিস ঘেরাও করা হবে। প্রয়োজনে নোয়াখালী আদালতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে।’

এ সময় নাজির আলমগীরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে দেশের প্রধান বিচারপতি, আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানান নেতারা।

মানববন্ধনে উপস্থিত অন্যান্য বক্তারা বলেন, ‘দুর্নীতির মামলায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দেয়া তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আফজাল হোসেন তার প্রতিবেদন তৈরি করেছেন। এখানে তার ব্যক্তিগত কোনো বক্তব্য প্রচারিত হয়নি। এমন একটি প্রতিবেদন নিয়ে এভাবে হয়রানিমূলকভাবে একের পর এক মামলা করা উদ্বেগজনক। এ ধরনের মামলা স্বাধীন সাংবাদিকতা ও মুক্ত গণমাধ্যমের নীতির চূড়ান্ত অবমাননা।’

বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সাংবাদিকদের কণ্ঠরোধের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে উল্লেখ করে বক্তারা অবিলম্বে এই আইন বাতিলের দাবি জানান।

এলআরএফের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইয়াছিনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন সংগঠনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. দিদারুল আলম দিদার, এ কে এম রফিকুল হাসান (হাসান জাবেদ), নাজমুল আহসান রাজু, যুগ্ম সম্পাদক মো. সাইদুল ইসলামসহ প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সহ-সভাপতি ও আজিজুল ইসলাম পান্নু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মিশন (ভারপ্রাপ্ত), ডিআরইউ’র সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ মুহাম্মদ জামাল হোসাইনসহ অর্ধশত গণমাধ্যম কর্মী।

jagonews24

এলআরএফের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠিত সাংবাদিকদের মানববন্ধন কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করেছেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু। এতে আরও সংহতি প্রকাশ করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার মোকছেদুল ইসলাম।

প্রসঙ্গত, আদালতের কর্মচারীর বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের করা দুর্নীতির মামলায় নিয়ে সময় টিভিতে প্রতিবেদন প্রকাশ করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ও মানহানির অভিযোগে সাংবাদিক আফজালের বিরুদ্ধে দুটি মামলা দায়ের করা হয়।

দুর্নীতির প্রতিবেদন করায় সময় টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ (এমডি) তিন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা করেছেন নোয়াখালী নাজির জেলা আদালতের (সাময়িক বরখাস্তকৃত) নাজির আলমগীর হোসেন। গত ১৩ মে চট্টগ্রামের সাইবার আদালতে ছয়জনের বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করেন তিনি।

আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য নোয়াখালী পিবিআইকে দায়িত্ব দিয়েছেন। মামলার আসামিরা হলেন- সময় টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও আহমেদ জোবায়ের, জ্যেষ্ঠ বার্তা সম্পাদক মানোয়ার হোসেন এবং জ্যেষ্ঠ রিপোর্টার আফজাল হোসেন। এছাড়া বাকি তিন জন হলেন- জাহাঙ্গীর হোসেন, মশিউর রহমান এবং সুবেল আহমদ।

এর আগে গত ৫ মে নোয়াখালী যুগ্ম জেলা জজ আদালতে ১০ কোটি টাকার আরেকটি মামলা করেন নাজির। এ মামলাতেও সময় সংবাদের তিন সাংবাদিকসহ ছয়জনকে আসামি করা হয়েছে। আদালত মামলাটি গ্রহণ করে বিবাদীদের সমন জারি করা হয়েছে। মামলার শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে আগামী ২০ জুন। মামলা দুটি করার ক্ষেত্রে বাদী প্রতারণার আশ্রয় নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন নোয়াখালী জেলা দুদকের পিপি আবুল কাশেম।

এফএইচ/এমআরআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]