ডিজিটাল আইনে মামলা দিয়ে সাংবাদিকদের হয়রানি করা হচ্ছে: বিএফইউজে

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২০ পিএম, ৩১ জুলাই ২০২২

দেশের পেশাদার সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে তাদের হয়রানি করা হচ্ছে বলে দাবি করেছে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে)।

একই সঙ্গে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের যেসব ধারা স্বাধীন সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে বাধা হিসেবে কাজ করছে, অবিলম্বে সেসব ধারা বাতিল ও সাংবাদিকদের নামে এ আইনে করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

রোববার (৩১ জুলাই) বিএফইউজের সভাপতি ওমর ফারুক ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. হেদায়েৎ হোসেন মোল্লা এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে সাংবাদিক হত্যা ও নির্যাতন এবং তাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলার ঘটনাগুলো নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়, গত ৩ জুলাই রাত ৯টার দিকে পত্রিকা অফিসে কাজ করার সময় কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক আমাদের নতুন সময় পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি হাসিবুর রহমানের মুঠোফোনে একটি কল আসে। এরপর তিনি অফিস থেকে বেরিয়ে যান। পাঁচদিন নিখোঁজ থাকার পর গত ৮ জুলাই তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। বিএফইউজে এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের বিচার করার দাবি জানায়।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, সংবাদ প্রচার করার কারণে বরগুনার ইমরান হোসেন (একাত্তর টেলিভিশন ও রাইজিংবিডি ডটকম), চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার মাহবুবুর রহমান (দৈনিক যুগান্তর ও দৈনিক আজাদী), এনায়েত হোসেন (দৈনিক কালের কণ্ঠ ও দৈনিক পূর্বকোণ), মোহাম্মদ ইউসুফ (বাংলা ট্রিবিউন, দৈনিক ইত্তেফাক ও দৈনিক সাঙ্গু), নয়ন কান্তি (দৈনিক ভোরের পাতা), মো. জাভেদ (দৈনিক স্বদেশ প্রতিদিন), সেকান্দর হোসাইন (দৈনিক সমকাল) ও মো. জহিরুল ইসলামের (আমার সংবাদ) বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে।

এছাড়া কুষ্টিয়ায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় বাংলা টিভির ভেড়ামারা প্রতিনিধি মো. ওমর ফারুককে গ্রেফতার করা হয় এবং গত ২১ জুলাই ঢাকা পোস্টের কক্সবাজার প্রতিনিধি সাইদুল ফরহাদকে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অশালীন ভাষায় গালমন্দ করেন বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

এইচএস/এমপি/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।