ইসলামী ব্যাংকের শেয়ারহোল্ডারদের মানববন্ধনে সাংবাদিকদের ওপর হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৫১ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২

ইসলামী ব্যাংকের শেয়ারহোল্ডার ও গ্রাহক অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের মানববন্ধনে হামলার শিকার হয়েছেন মানবজমিনের প্রতিবেদক আব্দুল্লা আল মারুফ ও ইত্তেফাকের প্রতিবেদক হাসিব প্রান্থ। এসময় হামলাকারীরা তাদের তিনটি মোবাইলফোন ছিনিয়ে নেয়।

রোববার (৪ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাব এলাকার উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া কয়েকজন জানান, মানববন্ধন শুরুর পরই হামলার ঘটনা ঘটে। পুলিশের সামনেই অতর্কিত হামলার ঘটনা ঘটলেও পুলিশ অনেকটাই নীরব ভূমিকা পালন করে। হামলাকারীদের অধিকাংশই কামরাঙ্গীরচর থেকে আসা। হামলার সময় তারা স্লোগান দেন, কামরাঙ্গীরচরের মাটি মুক্তিযুদ্ধের ঘাঁটি, এখানে কোনো দেশবিরোধী চক্রান্তকারীদের ঠাঁই নেই।

তারা আরও জানান, আমাদের পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা প্রেস ক্লাবের সামনে। কিন্তু ওখানে আগে থেকেই ছাত্রলীগ ও যুবলীগের অবস্থান ছিল। এজন্য আমরা উদীচী ভবনের সামনে সড়কে অবস্থান নিয়ে মানববন্ধন করি। কিন্তু মানববন্ধন শুরু হওয়ার পরপরই আমাদের ওপরে হামলা করা হয়। সম্প্রতি ইসলামী ব্যাংকের অনিয়ম নিয়ে আমাদের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। আমরা শেয়ারহোল্ডার। আমরা চাই এ ব্যাংকটি বেঁচে থাকুক, সুন্দরভাবে থাকুক, কোনো অনিয়ম চাই না।

ইসলামী ব্যাংকের শেয়ারহোল্ডারদের মানববন্ধনে সাংবাদিকদের ওপর হামলা

হামলার সময় জাগো নিউজের প্রতিবেদকের মোবাইলফোন ছিনিয়ে নেওয়া হয়। পরে পুলিশের সহযোগিতায় ফোন ফিরিয়ে দেন হামলাকারীরা।

হামলায় শিকার মানবজমিন প্রতিবেদক আব্দুল্লা আল মারুফ বলেন, প্রেস ক্লাব এলাকায় আমরা নিউজ কাভার করতে আসি। এসময় ইসলামী ব্যাংকের শেয়ারহোল্ডারদের একটি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। আমরা মানববন্ধনের নিউজ কাভার করার জন্য দাঁড়ালে মুহূর্তে কয়েকশো ছেলে জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে হামলা শুরু করে। আমরা সাংবাদিক পরিচয় দেওয়ার পরেও আমাদের ওপর অতর্কিত হামলা করে। এসময় তারা আমার দুটি মোবাইলফোন, মানিব্যাগ, আইডি কার্ড ও সঙ্গে থাকা আরেকটি ব্যাগ নিয়ে যায়।

ইত্তেফাকের প্রতিবেদক হাসিব প্রান্থ বলেন, আমার আইফোন ইলেভেন প্রো, মানিব্যাগের ১০ হাজার ৮০০ টাকা ছিনিয়ে নেয়। তারা আমার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। পুলিশের সামনে এই হামলার ঘটনা ঘটলেও পুলিশ নীরব ভূমিকা পালন করে।

ইএআর/আরএডি/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।