Jago News logo
Banglalink
ঢাকা, শনিবার, ২৭ মে ২০১৭ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

প্রথম আলোকে একহাত নিলেন গাফফার চৌধুরী


জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০৯:১২ পিএম, ১৯ মে ২০১৭, শুক্রবার | আপডেট: ০৫:৫৭ পিএম, ২২ মে ২০১৭, সোমবার
প্রথম আলোকে একহাত নিলেন গাফফার চৌধুরী

প্রকাশিত একটি সংবাদের সমালোচনা করে ‘প্রথম আলো’ কর্তৃপক্ষকে একহাত নিয়েছেন প্রবীণ সাংবাদিক ও প্রাবন্ধিক আব্দুল গাফফার চৌধুরী।

সরাসরি দৈনিকটির নাম উল্লেখ না করলেও ‘তিস্তা একটি নদীর নাম’ শীর্ষক প্রকাশিত একটি বিশেষ সংখ্যার শিরোনাম উল্লেখ করে এ সমালোচনা করেন তিনি। বৃহস্পতিবার ‘তিস্তা একটি নদীর নাম’ শীর্ষক একটি বিশেষ সংখ্যায় তিস্তা নদীর সার্বিক অবস্থা নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করে দৈনিক প্রথম আলো।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন বাংলা টিভি’র সম্প্রচার কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রথম আলোর এ সংবাদ নিয়ে কথা বলেন তিনি। রাজধানীর একটি হোটেলে ওই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন আকতার গ্রুপের চেয়ারম্যান কে এম আকতারুজ্জামান। বাংলা টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ সামাদুল হক শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানে।

আব্দুল গাফফার চৌধুরী বলেন, ‘নদীর পানি নিয়ে অনেক যুদ্ধ হয়েছে। পানি নিয়েই কারবালার যুদ্ধ হয়েছে। পানি ইস্যুতে মধ্যপ্রাচ্যে এখনও যুদ্ধ হচ্ছে। তিস্তার পানি সংকট নিরসনে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। শেখ হাসিনার সরকার ভারসাম্য নীতি অবলম্বন করে চলছে। এটি একটি সফল কূটনৈতিক অর্জন।’

‘কিন্তু দেশের শীর্ষ একটি দৈনিক ‘তিস্তা একটি নদীর নাম’ শিরোনামে যে সংবাদ প্রকাশ করেছে গতকাল (বৃহস্পতিবার), তা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। পত্রিকাটি বলছে, তিস্তার এপারে (বাংলাদেশ) কোনো পানি নেই। সব পানি ওপারে (ভারত) সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। এমন সংবাদ উত্তেজনা ছড়ায়। সংবাদের উদ্দেশ্য যুদ্ধ পরিস্থিতি সৃষ্টি করা নয়।’

গণমাধ্যমে প্রচারিত বিজ্ঞাপন প্রসঙ্গে গাফফার চৌধরী বলেন, ‘এ নিয়ে নীতিমালা হওয়া দরকার। সমাজের প্রতি দায়িত্ব নিয়ে গণমাধ্যম পরিচালনা করা উচিত। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করে গণমাধ্যম জনকল্যাণে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে পারে।`

তিনি বলেন, `বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় গণমাধ্যম আরও শক্তিশালী ভূমিকা রাখবে বলে আমি বিশ্বাস করি।`

এএসএস/এমএমএ/ওআর/এমএস

আপনার মন্তব্য লিখুন...