মুক্তার হাতের অপারেশন শনিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:০৩ এএম, ০৮ আগস্ট ২০১৭
ফাইল ছবি

বিরল চর্মরোগে আক্রান্ত শিশু মুক্তার হাতে আগামী শনিবার (১২ আগস্ট) অপারেশন করা হবে। শিশু মুক্তার বায়োপসি রিপোর্ট নিয়ে অনুষ্ঠিত বোর্ডের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন বৈঠক শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সোমবার (৭ আগস্ট) রাতে আমরা মুক্তার বায়োপসি রিপোর্ট হাতে পাই। এরপর ১৩ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড আজ (মঙ্গলবার) সকালে বৈঠকে বসি। সেখান থেকেই শনিবারের অপারেশনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বিরল রোগের অপারেশনে মুক্তার হাত কাটতে হবে কি না? -সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যদি তার হাত কাটার প্রয়োজন হয় তাহলে কি করব? সে বিষয়ে আমরা তার বাবা-মার সঙ্গে কথা বলেছি। মুক্তার জীবন রক্ষার্থে হাতকাটা হলে এতে তাদের সম্মতি রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এখন পর্যন্ত ভালো লক্ষণ যে, মুক্তামনির শরীরে ক্যানসার ছড়ায়নি। তবে অস্ত্রোপচারে রক্তপাতের আশঙ্কা রয়েছে। তাই ১০ ব্যাগ রক্ত প্রস্তুত রাখা হবে।

এর আগে মুক্তার হাতের রোগটি শনাক্তে করা বায়োপসি রিপোর্টে তার রক্তনালীতে টিউমার ধরা পড়ে।

গত ৫ আগস্ট ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের তিনতলার অপারেশন থিয়েটারে মুক্তার বায়োপসি করা হয়। বায়োপসির পর নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) থেকে মুক্তাকে কেবিনে নেয়া হয়। তবে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে পরে আবারও তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়।

সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে বিরল চর্মরোগে আক্রান্ত সাতক্ষীরার শিশু মুক্তাকে নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। গত ৯ জুলাই জাগো নিউজে ‘লুকিয়ে রাখতে হয় মুক্তাকে’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। ওই প্রতিবেদন প্রকাশের পর মুক্তার চিকিৎসা দেয়ার দায়িত্ব নেন স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তার যাবতীয় চিকিৎসার ব্যয়ভার বহনের দায়িত্ব নেন।

এরই মধ্যে মুক্তার চিকিৎসার জন্য একটি বোর্ড গঠনসহ সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে ঢামেক কর্তৃপক্ষ।

এআর/আরএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :