ডিম ক্রেতাদের সরিয়ে দিচ্ছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৫৩ এএম, ১৩ অক্টোবর ২০১৭ | আপডেট: ১২:২৫ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০১৭

রাজধানীর ফার্মগেটে খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে ডিম মেলায় ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় লেগেছে। ডিম কিনতে দুই কিলোমিটার জুড়ে লাইনে দাঁড়িয়েছেন মানুষ। ক্রেতাদের চাপে মেলা প্রাঙ্গণে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়েছে। তাই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ক্রেতাদের মেলা প্রাঙ্গণ থেকে সরিয়ে দিচ্ছে পুলিশ।

এই ডিম মেলা নিয়ে আগে থেকেই ব্যাপক প্রচার প্রচারণা থাকায় আজ মেলা শুরুর আগে সকাল ৭টা থেকে লোকে লোকারণ্য হয়ে ওঠে খামারবাড়ি এলাকা। ফার্মগেট-বিজয় স্মরণি পর্যন্ত লাইনে দাঁড়িয়েছেন মানুষ।

ডিম না পেয়ে অনেক ক্রেতা হইচই শুরু করছেন। ক্রেতারা ‘ডিম চোর’ ‘ডিম চোর’ বলে স্লোগান দিচ্ছেন। অনেকে আবার ডিম কিনতে না পেরে হতাশ হয়ে বাসায় ফিরে যাচ্ছেন।

শুক্রবার সকালে বালতি ও ব্যাগ নিয়ে ডিম কিনতে মোহাম্মদপুর থেকে এসেছেন করিমা বেগম। তিনি বলেন, মাত্র তিন টাকা দরে ডিম বিক্রির খবর পেয়ে এখানে এসেছি। কিন্তু সকাল ১১টা পর্যন্ত একটি ডিমও কিনতে পারেনি। ৩ ঘণ্টা ধরে অপেক্ষায় আছি। কিন্তু ডিমের দেখা পাচ্ছি না।

ডিম কিনতে না পেয়ে বিষণ্ন মনে বাসায় ফিরে যাচ্ছেন বেসরকারি চাকরিজীবী খোকন। তিনি বলেন, খুব সকালে ডিম কিনতে এসেও ডিম না পেয়ে মন খারাপ করে বাসায় যাচ্ছি। ডিমের সংকট থাকলে আয়োজকদের এতো বেশি প্রচারণা চালানোর দরকার ছিলো না। ডিম পাবো না। এখানে মারামারি হবে। তাই চলে যাচ্ছি।

dim-2

এ দিকে আজ শুক্রবার সকালে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনের হল রুমে একটি অনুষ্ঠানে বক্তৃতার এক পর্যায়ে শিক্ষা মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ডিম মেলার ভিড় সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে বলেন, সকালে আমি যখন এই অনুষ্ঠানে যোগদানের জন্য ফার্মগেট দিয়ে আসছিলাম, তখন মানুষের উপচে পড়া ভিড় দেখে ভড়কে গিয়েছিলাম। পরে জানতে পারি তিন টাকায় ডিম কেনার জন্য মানুষের এই লাইন। আমি গাড়ি থেকে নেমে হেঁটে এ অনুষ্ঠানে এসেছি।

তিনি বলেন, এখানে সস্তায় ডিম পাওয়া যাচ্ছে শুনে, যে যেখানে আছে সবাই দৌড়ে আসছে। আমিও ফার্মগেট থেকে দৌড়ে অনুষ্ঠানে এসেছি। অনেকে মনে করেছেন, আমিও মনে হয় ডিম কিনতে দৌড়াচ্ছি। আমি তো বলতে পারি না ডিম কিনতে না, অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসেছি। তবে আমাকে তাদের দলের ভেবেছে জেনে খুশি হয়েছি।

শিক্ষা মন্ত্রী বলেন, আমরা স্ত্রী কোনো একটি দুধের কৌটার সঙ্গে চামচ ফ্রি দিলে সেটাও কিনতে চায়। এটা আমাদের জাতীয় বৈশিষ্ট। সস্তায় পেলে সবই কিনতে চায়।

উল্লেখ্য, বিশ্ব ডিম দিবস উপলক্ষে আজ এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। বাজারে ডিমের বিদ্যমান দামের চেয়ে মেলায় অর্ধেকেরও কম দামে ডিম বিক্রি করা হচ্ছে। অর্থাৎ বাজারে যে ডিম প্রতি পিস ৮ টাকা করে বিক্রি হয়, সেটি মেলায় বিক্রি হচ্ছে প্রতি পিস ৩ টাকায়। মেলায় বড় বড় পোল্ট্রি ফার্ম, ডিম উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ও ডিম দিয়ে নানা ধরনের খাবার প্রস্তুতকারক কোম্পানি অংশ নিয়েছে।

এমএ/এএস/এআরএস/এমএস