বৃষ্টির দিন কই আছিলেন?

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:৪০ এএম, ২৩ অক্টোবর ২০১৭

‘বৃষ্টির পানিতে কী দুভোর্গই না পোহাইতে অইলো। পানি পার হইতেই কয়েক দফা রিকশা ভাড়া দিলাম। আর আইজ রোদের দিনে আপনারা আইছেন। বৃষ্টির দিন কই আছিলেন।’

সোমবার (২৩ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৯টায় নিউ মার্কেটের সামনে দক্ষিণ ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) জেট অ্যান্ড সাকার মেশিন গাড়ির চালককে উদ্দেশ্য করে কথাগুলো বলছিলেন নিউমার্কেটের ব্যবসায়ী ফরিদউদ্দিন। তার এমন কথায় সায় দেয় ডিএসসিসির জলাবদ্ধতা নিরসনের এ মেশিনকে ঘিরে দাঁড়িয়ে থাকা উপস্থিত অন্যান্যরাও।

মেশিনের চালক এ সময় বোতাম টিপে ম্যানহোলের ভেতর ক্রেনের সাহায্যে পাইপ নামিয়ে ময়লা পরিষ্কারের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। পাইপের মধ্যে শক্ত কিছু বাধাগ্রস্থ হওয়ায় কোদালের মতো লম্বা যন্ত্র দিয়ে বড় ইটের টুকরা ও ভাঙা কাঠ তুলে আনছেন।

sakar-2

ড্রেন থেকে তুলে আনা ময়লা দেখিয়ে গাড়িচালক বলেন, ‘দেখেন, ভালো কইরা দেখেন, আপনারা ড্রেনের মধ্যে কী সব ফেলেন, এই কারণেই তো বৃষ্টি হইলেই পানি জইম্যা যায়। আপনাদের দুর্ভোগ আমরা একা কমাইতে পারুম না। এই জন্য আপনাদেরকে সাবধান হয়ে ড্রেনে ময়লা আবর্জনা ফালাইতে হইবো।’

মাত্র দু’দিন আগে গত শুক্র ও শনিবার টানা বৃষ্টিতে নগরীর পুরান ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় সৃষ্ট হয় জলাবদ্ধতা। হাজার হাজার মানুষকে নিদারুন দুর্ভোগ পোহাদেত হয়। নগরীর অন্যতম প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত নিউ মার্কেটের এক নম্বর গেটের সামনের রাস্তা পানিতে ডুবে ছিন।

sakar-2

উপস্থিত স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, নগরজুড়ে জলাবদ্ধতা নিরসনে দক্ষিণ ঢাকা সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) প্রায় ১২ কোটি ব্যয়ে অত্যাধুনিক জেট অ্যান্ড সাকার মেশিন কিনেছে শুনে খুশি হয়েছিলেন। কিন্তু বছর খানেক আগে কেনা হলেও কোনো বৃষ্টিতে নিউ মার্কেট এলাকার জলাবদ্ধতা দূর করতে তা ব্যবহার করা হয়নি।

জানা গেছে, জেট অ্যান্ড সাকার নামক এ যন্ত্রটি জলাবদ্ধতা দূর করতে আনা হলেও মূলত এটি কাজে লাগে পয়ঃনিষ্কাশন লাইন পরিষ্কারে। পয়ঃনিষ্কাশন লাইনে জমে থাকা ময়লা-আবর্জনা টেনে নিয়ে পানি আলাদা করে ড্রেনে ছেড়ে দেয়। এর মাধ্যমে মাত্র ১০ মিনিটে ১২০ মিটার ময়লা পরিষ্কার করা যায়। মেশিনটিতে ১৫ হাজার লিটার পানি ধরে।

বৃষ্টির দিনে অত্যাধুনিক এ মেশিনটির ব্যবহার হতে না দেখা উপস্থিত নগরবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

এমইউ/আরএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :