পোপের সফরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:১২ পিএম, ২২ নভেম্বর ২০১৭
ফাইল ছবি

ক্যাথলিক খ্রিষ্টানদের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিসের বাংলাদেশ সফরে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে পুলিশ। ইউনিফর্ম পরিহিত পুলিশের পাশাপাশি পোপের নিরাপত্তায় থাকবে সাদা পোশাকের গোয়েন্দা সদস্য ও র‍্যাব। সফরকে কেন্দ্র করে কেউ যাতে কোনো ধরনের গুজব না ছড়াতে পারে সে বিষয়ে কঠোর পর্যবেক্ষণের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

বুধবার পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের সম্মেলন কক্ষে পোপের সফর উপলক্ষে নিরাপত্তা-সংক্রান্ত সভায় এ নির্দেশনা দেন বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক। পোপ ফ্রান্সিস আগামী ৩০ নভেম্বর ৩ দিনের সফরে বাংলাদেশে আসবেন।

সভায় আইজিপি আরও বলেন, পোপের সফরকালে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠনের কার্যক্রম নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ এবং তথ্য সংগ্রহ করা হবে। তিনি পোপের সফরকে কেন্দ্র করে কোনো গোষ্ঠী যাতে অহেতুক গুজব ছড়াতে না পারে সে জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম পর্যবেক্ষণের জন্য পুলিশ ও র‌্যাব কর্মকর্তাদের নির্দেশনা প্রদান করেন। এ সময় তিনি ব্লক রেইডের মাধ্যমে তল্লাশি কার্যক্রম পরিচালনার জন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন।

সভায় আইজিপি বলেন, পোপ ফ্রান্সিস বিশ্বের অন্যতম একজন সম্মানীয় ব্যক্তি। তার বাংলাদেশ সফর আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের, আনন্দের। পোপের সফরকালে পুলিশের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। সফরের সব ভেন্যু এবং ভিভিআইপি গমনাগমনকালে ইউনিফর্ম পরিহিত, সাদা পোশাকে পুলিশ এবং র‌্যাব সদস্য মোতায়েন থাকবে।

সভায় পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের অ্যাডিশনাল ডিআইজি (ইন্টারনাল অ্যান্ড স্পেশাল অ্যাফেয়ার্স) মো. মনিরুজ্জামান পোপের সফর উপলক্ষে সার্বিক নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা তুলে ধরেন।

সভায় অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন ও অপারেশনস) মো. মোখলেসুর রহমান, ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত আইজিপি মোহাম্মদ শফিকুর রহমান, ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশনস) মো. মিজানুর রহমান, র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জামিল আহমদ, পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এবং বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধিসহ বাংলাদেশে পোপের সফর উপলক্ষে গঠিত নিরাপত্তা ও স্বেচ্ছাসেবকবিষয়ক কমিটির আহ্বায়ক নির্মল রোজারিও এবং খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

পোপ ফ্রান্সিসের সফরকালে প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং প্রেসিডেন্টের নিমন্ত্রণ করা অতিথিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ, খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীদের একটি উপাসনা অনুষ্ঠানে পৌরহিত্য করবেন পোপ। ওই অনুষ্ঠানে ১৬ জন ডিকনকে ধর্মযাজক পদে অভিষিক্ত করবেন তিনি।

এআর/ওআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :