যেসব রাস্তা দিয়ে যাবে আনন্দ শোভাযাত্রা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:২২ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭
যেসব রাস্তা দিয়ে যাবে আনন্দ শোভাযাত্রা

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণকে ইউনেস্কো ঐতিহাসিক দলিল হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ায় আজ শনিবার ঢাকাসহ সারা দেশে আনন্দ শোভাযাত্রা ও সমাবেশ করবেন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। আজ দুপুর ১২টায় ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে ঢাকা মহানগরের কর্মসূচি শুরু হবে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক দক্ষিণ বিভাগ জানিয়েছে, শোভাযাত্রাটি দুপুর ১২টায় ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর থেকে যাত্রা শুরু করে রাসেল স্কয়ার দিয়ে কলাবাগান হয়ে সায়েন্সল্যাব থেকে বায়ে মোড় নিয়ে বাটা সিগন্যাল-কাঁটাবন ক্রসিং হয়ে শাহবাগ যাবে। শাহবাগ থেকে ডানে মোড় নিয়ে চারুকলা ইনস্টিটিউটের বিপরীত পাশে ছবির হাট হয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গিয়ে শেষ হবে।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশের ক্ষেত্রে ছবির হাট গেট (চারুকলার বিপরীতে), টিএসসি গেট (বাংলা একাডেমির বিপরীতে), কালীমন্দির গেট ও তিন নেতার মাজার গেট ব্যবহার করার নির্দেশনা দিয়েছে ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ। নগরবাসীকে ট্রাফিক পুলিশের রুট ম্যাপ দেখে চলাচলের পরামর্শও দেয়া হয়েছে।

আজকের আনন্দ শোভাযাত্রায় লাখো মানুষের সমাগম ঘটবে বলে আয়োজকদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। সরকারি বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আনন্দ শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। শোভাযাত্রায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ছাড়াও মুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক ব্যক্তি, ক্রীড়া সংগঠক ও খ্যাতিমান ক্রীড়াবিদ, সাংস্কৃতিককর্মী ও সংগঠক, শিল্পকলা একাডেমি, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, এনজিও, স্কাউটস ও রোভারের সদস্যরা অংশ নেবেন।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের সভায় বিকেল ৩টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। স্বাগত বক্তব্যের পর ৭ মার্চের ভাষণের প্রেক্ষাপট বর্ণনা করে ভাষণটি বাজানো হবে। প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের পর শুরু হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। লেজার শো’র মাধ্যমে শেষ হবে আনন্দ শোভাযাত্রা পরবর্তী সভা।

এআর/এআরএস/এমএস