‘এত দূরদর্শিতা আর দিক-নির্দেশনা পৃথিবীর কোনো ভাষণে নেই’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:১২ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ১১:১৫ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭
‘এত দূরদর্শিতা আর দিক-নির্দেশনা পৃথিবীর কোনো ভাষণে নেই’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বার বার মনে পড়ে ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের কথা। সে দিনের জনসমুদ্রে আমার আসার সৌভাগ্য হয়েছিল। আমরা এসেছি, ভাষণ শুনেছি। দেখেছি সেদিন বাংলার মানুষের উত্তাল তরঙ্গ।

তিনি বলেন, আমাদের প্রতিটি অর্জন জাতির পিতার নেতৃত্বে। শিক্ষা, অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থানের পাশাপাশি দেশকে একটি স্বাধীন জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠায় জাতির পিতা আন্দোলন গড়ে তোলেন।

ইউনেস্কোতে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের স্বীকৃতি উদযাপন করতে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আয়োজনে সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, স্বাধীনতার মন্ত্রে বাঙালি জাতিকে উদ্বুদ্ধ করেন। বাংলার মানুষের সঙ্গে জাতির পিতার আত্মিক সম্পর্ক এ ভাষণে ফুটে ওঠে। তিনি অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দেন। তিনি গেরিলা যুদ্ধের নির্দেশনা দিয়েছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এত দূরদর্শিতা, এত দিক-নির্দেশনা পৃথিবীর কোনো ভাষণে পাওয়া যায় না।

তিনি বলেন, আজকে আমরা আনন্দিত। এ ভাষণ আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেয়েছে। ৪৬ বছর আগের এ ভাষণকে স্বীকৃতি দেয়ায় ইউনেস্কো, তার সাবেক পরিচালক, যারা ভোট দিয়েছেন এবং সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানাই।

উল্লেখ্য, গত ৩০ অক্টোবর ইউনেস্কো ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দেয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণকে বিশ্ব ঐতিহ্যের প্রামাণ্য দলিল হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। সে উপলক্ষে আনন্দ শোভাযাত্রার আয়োজন।

এইউএ/এএইচ/আরআইপি/জেআইএম