একুশেই ৩৮ মিনিটে উত্তরা থেকে মতিঝিল

মাসুদ রানা
মাসুদ রানা , নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:১৫ পিএম, ১১ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৩:২০ এএম, ১২ জানুয়ারি ২০১৮

ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) স্টলে মেট্রোরেলের (এমআরটি-৬) নকশার সামনে দাঁড়িয়ে দর্শকদের নানা জিজ্ঞাসার জবাব দিচ্ছিলেন কর্মী মঈনুদ্দিন। তিনি জানাচ্ছিলেন, ২০২০ সালের শেষের দিকে উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রোরেল পরীক্ষামূলকভাবে চালু হবে। পুরোদমে চালু হবে ২০২১ সালে। মেট্রোরেলে উত্তরা থেকে মতিঝিলে আসতে সময় লাগবে মাত্র ৩৮ মিনিট।

পুরো সেতুর অবয়ব দিয়ে সাজানো বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের স্টলের সামনে কৌতুহলী অনেকেই দাঁড়িয়ে যাচ্ছিলের ক্ষণিকের জন্য।

রাজধানীর সেগুনবাগিচায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে আয়োজন করা সরকারের উন্নয়ন মেলার চিত্র এটি। মেলার প্রতিটি স্টলে সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম ও সাফল্য তুলে ধরা হয়েছে।

jagonews24

২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয় এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে উন্নীত করতে সরকারের বহুমুখী উন্নয়ন তৎপরতা ও সাফল্য জনগণের কাছে তুলে ধরতে সব জেলা ও উপজেলায় তিন দিনব্যাপী ‘উন্নয়ন মেলা-২০১৮’ আয়োজন করেছে সরকার।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবন থেকে মেলার উদ্বোধন করেন। প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধন ঘোষণার পর সোয়া ১১টার দিকে সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বেলুন ও সাদা পায়রা উড়িয়ে শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে উন্নয়ন মেলা উদ্বোধন করেন।

সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ এবং এর অধীনস্থ দফতরের মোট ৯৪টি স্টল রয়েছে বলে জানা গেছে।

মন্ত্রণালয়, বিভাগ ও দফতর বা সংস্থাগুলো নিজেদের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও সাফল্য নিয়ে লিফলেট, পুস্তিকা প্রকাশ করেছে। স্টল পরিদর্শনে যাওয়া মানুষকে সেগুলো বিতরণ করা হচ্ছে। উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও সেবা নিয়ে আগতদের ব্রিফও করছেন স্টলের কর্মীরা। এ ছাড়া অনেক স্টলের সামনে বড় এলইডি স্ক্রিনে সাফল্য গাথা প্রচার করা হচ্ছে।

মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা গেছে, সেখানে কৃষি মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, অর্থ বিভাগ, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বিদ্যুৎ বিভাগ, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়, শিল্প মন্ত্রণালয়ের স্টল রয়েছে।

jagonews24

দৃষ্টি নন্দন স্টল সাজিয়েছে সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীও। তিন বাহিনীর স্টলে বেশ ভিড় দেখা গেছে।

মেলায় মিরপুর বেনারশী পল্লীর পাঁচটি স্টল রয়েছে। সেখানে বিক্রি হচ্ছে বেনারশী শাড়ি। এছাড়া মেলায় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক, আশা, সাজেদা ফাউন্ডেশনও স্টল সাজিয়েছে। মেলার মাঝামাঝি স্থানে একটি বেনারশী তাঁত বসানো হয়েছে। সেখানে দর্শকদের বেনারশী শাড়ি বুনে দেখানো হচ্ছে।

এ ছাড়া মেলায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদফতর, বাংলাদেশ রেলওয়ে, জেলা শিক্ষা অফিস, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড, ঢাকা ওয়াসা, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, জেলা সমবায় অফিস, বাংলাদেশ ব্যাংক, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি), হাউস বিল্ডিং ফাইন্যান্স করপোরেশন, মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন কেন্দ্র (স্পরসো), জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতর, জাতীয় সঞ্চয় অধিদফতর, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ), বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ), নৌপরিবহন অধিদফতর, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের কার্যালয়, আমদানি ও রফতানি নিয়ন্ত্রকের দফতর, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, মৎস্য অধিদফতর, বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশন, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী, ঢাকা জেলা পরিষদ, ঢাকা জেলা প্রশাসন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন, ঢাকা জেলা পুলিশ, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি), জেলা তথ্য অফিস, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর (এলজিইডি), বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিসি), ন্যাশনাল হাউজিং অথরিটি, আবহাওয়া অধিদফতর, সড়ক ও জনপথ অধিদফতর, সমাজসেবা অধিদফতর, গণপূর্ত অধিদফতর, জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো স্টল নিয়েছে।

মেলা চলবে আগামী শনিবার পর্যন্ত।

আরএমএম/এমএএস/এনএফ/বিএ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :