মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর অনুমতি ছাড়া ১০ কর্মকর্তার বদলি আদেশ বাতিল

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১১:৪১ এএম, ১৮ জানুয়ারি ২০১৮

স্বাস্থ্য বিভাগের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সহকারী পরিচালক পদে দশ চিকিৎসকের বদলি ও পদায়নের আদেশ বাতিল করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়।

বুধবার রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের যুগ্মসচিব (পারসোনাল শাখা ২) এ কে এম ফজলুল হক এর স্বাক্ষরে প্রজ্ঞাপন জারি হলেও একই ব্যক্তির স্বাক্ষরে রাষ্ট্রপতির আদেশে ওই বদলি পদায়নের আদেশটি বাতিল করা হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, অনিবার্যকারনবশত ওই আদেশটি বাতিল করা হলো।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, অনিবার্যকারনবশত বলা হলেও মূলত স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর অনুমতি ছাড়া ওই বদলি পদায়নের আদেশ জারি হওয়ায় ক্ষুব্ধ হন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। তার অজ্ঞাতসারে কেন, কীভাবে ওই আদেশটি জারি হলো তা তিনি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে ডেকে জানতে চান এবং ওই আদেশ বাতিলের নির্দেশ দেন।

গত ১৬ জানুয়ারি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের প্রশাসন-১ অধিশাখার উপসচিব মো. রেজাউল আলম স্বাক্ষরিত এক আদেশে বদলি পদায়নের নতুন আদেশ জারি হয়।

ওই আদেশে বলা হয়, রাজধানীসহ সারাদেশের বিভিন্ন স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ, উপাধক্ষ্য, অধ্যাপকসহ বিভিন্ন শীর্ষ পদে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের মাধ্যমে সরাসরি কোনো বদলি ও পদায়ন হবে না। স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে সভাপতি ও স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীকে সহ-সভাপতি করে গঠিত ছয় সদস্যের একটি বিশেষ কমিটির মাধ্যমে এখন থেকে সকল প্রকার বদলি ও পদায়ন করা হবে।

ওই আদেশে আরও বলা হয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়াধীন অধ্যক্ষ, উপাধক্ষ্য, অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক, সহকারী অধ্যাপক, পরিচালক, উপপরিচালক, সহকারী পরিচালক, সিভিল সার্জন, সিনিয়র কনসালটেন্ট ও জুনিয়র কনসালটেন্ট সংক্রান্ত বদলি ও পদায়ন বিষয়ে ছয় সদস্যেও কমিটি গঠিত হলো।

ছয় সদস্যের এ কমিটিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সভাপতি, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী সহ-সভাপতি, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিবকে (প্রশাসন) সদস্যসচিব এবং স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে সদস্য করা হয়। এ কমিটি নিয়মিত বৈঠকে বসবেন এবং এ কমিটির সিদ্ধান্তের বাইরে কোনোরূপ বদলি ও পদায়ন হবে না।

বুধবার নতুন আদেশ জারি হলেও কমিটির অনুমতি ছাড়া বৃহস্পতিবার ১০ চিকিৎসককে সহকারী পরিচালক পদে বদলি ও পদায়নের আদেশ জারি হয়। ফলে ওই আদেশ জারির কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আদেশটি বাতিল হয়।

যে চিকিৎসককে যেখানে বদলি ও পদায়ন দেয়া হয়েছিল :

স্বাস্থ্য অধিদফতরে ওএসডি সহকারী পরিচালক ও ম্যাটস টাঙ্গাইলে সংযুক্ত ডা. প্রফুল্ল কুমার সাহাকে তেজগাঁও সিএমএসডির সহকারী পরিচালক (প্রশাসন), স্বাস্থ্য অধিদফতরে ওএসডি সহকারী পরিচালক ও ম্যাটস ঝিনাইদহে সংযুক্ত ডা. মো. আবদুর রউফকে সিএমএসডির সহকারী পরিচালক (আইএসএম), স্বাস্থ্য অধিদফতরে ওএসডি সহকারী পরিচালক ডা. প্রভাষ কুমার দাশকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সিডিসি (দুর্যোগ) এর সহকারী পরিচালক, স্বাস্থ্য অধিদফতরে ওএসডি সহকারী পরিচালক ডা. মো. সেলিম মিয়াকে চিকিৎসা তত্ত্বাবধায়ক (সহকারী পরিচালক সমমান), চট্টগ্রাম বক্ষব্যাধি হাসপাতাল, স্বাস্থ্য অধিদফতরে ওএসডি সহকারী পরিচালক ও ম্যাটস কুমিল্লায় সংযুক্ত ডা. মাহবুব আলমকে সিনিয়র লেকচারার (সহকারী পরিচালক সমমান), ম্যাটস কুমিল্লায়, স্বাস্থ্য অধিদফতরে ওএসডি সহকারী পরিচালক ও আইএইচটি, তাজহাট রংপুরে সংযুক্ত ডা. মো. মোখলেসুর রহমান সরকারকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক (অর্থ ও ভাণ্ডার), স্বাস্থ্য অধিদফতরে ওএসডি সহকারী পরিচালক ও ম্যাটস টাঙ্গাইলে সংযুক্ত ডা. নারায়ন চন্দ্র সাহাকে ম্যাটস টাঙ্গাইলের সিনিয়র লেকচারার (সহকারী পরিচালক সমমান), স্বাস্থ্য অধিদফতরের ওএসডি ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ইএনটিতে সহকারী পরিচালক পদে বদলি/পদায়নের আদেশাধীন ডা. এ টি এম নুরুজ্জামানকে স্বাস্থ্য অধিদফতরে সংযুক্ত ও শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বগুড়াতে সংযুক্ত এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরে ওএসডি সহকারী পরিচালক ও আইএইচটি ঝিনাইদহের ডা. স্বপন কুমার কুন্ডুকে রাজবাড়ি সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক (সহকারী পরিচালক সমমান) পদে বদলি ও পদায়ন দেয়া হয়। বদলি পদায়নের আদেশ বাতিল হওয়ায় সংশ্লিষ্টরা আপাতত স্ব স্ব কর্মস্থলে থাকবেন।

এমইউ/এমবিআর/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :