৫০ শতাংশ মানুষ পরোক্ষভাবে পোল্ট্রি খাতে জড়িত

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:১০ এএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৮

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের বাস্তবমুখী উদ্যোগের ফলে পোল্ট্রি খাত দেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্পখাতে পরিণত হয়েছে। অর্থনৈতিক উন্নয়নে এ খাতের ভূমিকা বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশের মোট জনগণের প্রায় ২০ শতাংশ প্রত্যক্ষ ও ৫০ শতাংশ মানুষ পরোক্ষভাবে এ খাতের সঙ্গে জড়িত। ২০১৬-২০১৭ সালে ৯২ দশমিক ৮৩ লাখ টন দুধ, ৭১ দশমিক ৫৪ লাখ টন মাংস ও ১ হাজার ৪৯৩ দশমিক ৩১ কোটি ডিম উৎপাদন হয়েছে।

‘প্রাণিসম্পদ সেবাসপ্তাহ-২০১৮’ উপলক্ষে শুক্রবার এক বাণীতে তিনি এসব কথা বলেছেন।

বাণীতে শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। জনগণের সুষম পুষ্টি নিশ্চিত করে একটি মেধাবী জাতি গঠনের মাধ্যমে উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলাই এখন আমাদের লক্ষ্য। সুষম পুষ্টি নিশ্চিতকরণে প্রাণিজ আমিষের ভূমিকা অপরিহার্য। গ্রামীণ কর্মসংস্থান, সার্বিক বেকারত্ব হ্রাস, রফতানি আয় বৃদ্ধির পাশাপাশি প্রাণিজ আমিষের চাহিদা মিটিয়ে একটি স্বাস্থ্যবান প্রজন্ম গড়ে তুলতে প্রাণিসম্পদ খাতের গুরুত্ব অপরিসীম।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ২০০৯ সালে সরকার গঠনের পর থেকে প্রাণিসম্পদের উন্নয়নে নিরসলভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আমরা প্রাণিসম্পদ বিষয়ক গবেষণায় বরাদ্দ বৃদ্ধি করেছি। মাঠ পর্যায়ে ক্ষুদ্র খামারি ও কৃষকদের গবাদি পশু ও হাঁস-মুরগি পালন বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদানের লক্ষে ৬৩টি উপজেলায় প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। গবাদি পশু-পাখির সুষম খাদ্য নিশ্চিতকরণে মিনি পশুখাদ্য বিশ্লেষণ ল্যাব প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। দুধ উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ৫ শতাংশ সুদে ঋণ প্রদানের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

বাণীতে শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‌একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প বর্তমান সরকারের একটি অগ্রাধিকার প্রকল্প। এ প্রকল্পের সফলতার পেছনে প্রাণিসম্পদ সেক্টরের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে।

উল্লেখ্য, শনিবার ২০ জানুয়ারি থেকে শুরু হলো ‘প্রাণিসম্পদ সেবাসপ্তাহ-২০১৮’। চলবে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় এবং প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের যৌথ উদ্যোগে সেবাসপ্তাহটি পালিত হবে।

জেডএ

আপনার মতামত লিখুন :