তাপমাত্রার কারণে গ্যাস সঙ্কট

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৪৯ এএম, ২৪ জানুয়ারি ২০১৮
ফাইল ছবি

রাজধানীজুড়ে গত কয়েকদিন ধরে দেখা দিয়েছে তীব্র গ্যাস সঙ্কট। শুধু এবার নয়, কয়েক বছর ধরে শীত আসলেই গ্যাসের সঙ্কটে পড়তে হচ্ছে রাজধানীবাসীদের। শীতের সময় গ্যাস লাইনের টেম্পারেচার (তাপমাত্রা) কমে যাওয়ার কারণে এ সঙ্কট দেখা দেয় বলে জানান বিশেষজ্ঞরা। পাশাপাশি মাত্রাতিরিক্ত সংযোগ দেওয়ায় এ সমস্যা বাড়ছে বলে জানান।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, কোনো কিছু করার আগে সে বিষয়ে বিস্তারিত পরিকল্পনা থাকা জরুরি। কিন্তু গ্যাসের বিষয়ে কোনো কিছুই পরিকল্পনা করে হয়নি। কী পরিমাণ গ্যাস সরবরাহ দেওয়ার সক্ষমতা আছে তা বিবেচনা না করেই ঢালাওভাবে বিভিন্ন ক্ষেত্রে গ্যাস সংযোগ দেয়া হয়েছে। গাড়িতে সিএনজি দেওয়ার সিদ্ধান্ত কিছুতেই যুক্তিসংগত হয়নি। সঠিক পরিকল্পনার অভাবেই গ্যাস সঙ্কট দেখা দিচ্ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সম্প্রতি রাজধানীর রামপুরা, বনশ্রী, তাঁতীবাজার, শাখারীবাজার, যাত্রাবাড়ী, ধলপুর, কাজলা, জুরাইন, পোস্তগোলা, সিপাহীবাগ, মিরপুর কাজীপাড়া, পাইকপাড়া, বিবিরবাগিচা, মোহাম্মদপুরের বিভিন্ন এলাকাসহ রাজধানীর অধিকাংশ এলাকার বাসাবাড়িতে গ্যাসের তীব্র সঙ্কট দেখা দিয়েছে। গ্যাস সঙ্কটের কারণে অনেক স্থানেই রাত জেগে রান্না করতে হচ্ছে।

কনজ্যুমার্স অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের (ক্যাব) জ্বালানি উপদেষ্টা এম শামসুল আলম জাগো নিউজকে বলেন, শীতের সময় লাইনে গ্যাসের টেম্পারেচার (তাপমাত্রা) কমে যায়। ফলে গ্যাসের ফ্লো কমে যায়। গ্যাস অল্প আসে। আবার টেম্পারেচার বাড়লে গ্যাসের ফ্লো বেড়ে যায়।

তিনি বলেন, শীতকাল আসলেই গ্যাসের এ সমস্যা কমন হয়ে যায়। কিন্তু সমস্যা উত্তরণে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে না। উল্টো অপরিকল্পনা মাফিক কাজ করা হচ্ছে। ঢালাওভাবে গ্যাস সংযোগ দেয়া হচ্ছে। গ্যাস সরবরাহের সক্ষমতা আছে কিনা সে বিষয়ে কোনো চিন্তা করা হচ্ছে না। সক্ষমতার অতিরিক্ত গ্যাস সংযোগ দিলে তো সঙ্কট দেখা দেবেই।

তিনি আরও বলেন, একদিকে গাড়িতে সিএনজি, অন্যদিকে অসংখ্য অবৈধ সংযোগ দেয়া হয়েছে। এসব অবৈধ সংযোগ বন্ধে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না। এভাবে চললে গ্যাস সঙ্কট থেকে রেহায় পাওয়া যাবে না।

জ্বালানি বিশেষজ্ঞ বি ডি রহমতউল্লাহ জাগো নিউজকে বলেন, শীতের সময় ঠান্ডার কারণে লাইনে গ্যাসের ঘনত্ব বেড়ে যায়। আর ঘনত্ব বেড়ে যাওয়ার কারণে গ্যাসের সরবরাহ কমে যায়। ফলে গ্যাস সঙ্কট দেখা দেয়। বিশ্বের অনেক দেশে এ জন্য গ্যাস লাইনে এক ধরনের মিটার লাগানো হয়। যা সংক্রিয়ভাবে গ্যাস লাইনের তাপমাত্র নিয়ন্ত্রণ করে গ্যাসের ঘনত্ব স্বাভাবিক রাখে।

ঘরের ভেতর কাপড় শুকানোসহ বিভিন্ন কারণে শীতের সময় গ্যাসের চাহিদা বেড়ে যায় -তিতাসের এমন দাবির প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা একেবারেই সত্য না। তিতাসের পক্ষ থেকে কেউ এটি বলে থাকলে ঠিক বলেননি। মূলত ঠান্ডার কারণেই গ্যাস কম আসে।

এমএএস/জেএইচ/আরএস/জেআইএম