সঙ্কট শেষ হতেই আবার সঙ্কটের শঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৫৪ এএম, ২৪ জানুয়ারি ২০১৮
ফাইল ছবি

শীতের তীব্রতার সঙ্গে সঙ্গে বাসাবাড়িতে দেখা দেয় গ্যাসের তীব্র সঙ্কট। ফলে অনেক বাসাবাড়িতে রান্না বন্ধ হওয়ার উপক্রম। হোটেলে গ্যাস না থাকায় অনেক সময় সেখানেও খাবার পাওয়া যায় না। তাই গ্যাস না থাকলে জনজীবন হয়ে উঠে দুর্বিষহ।

গত সপ্তাহে শেষ হওয়া শৈত্যপ্রবাহের সময় টানা প্রায় ১০ দিন ধানমন্ডি ও আশপাশের এলাকায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রায় ১৭ ঘণ্টা গ্যাস থাকতো না। তাই এ এলাকার জনজীবন অতিষ্ট হয়ে উঠেছিল। তবে গত তিন-চার দিন ধরে এ এলাকার বাসাবাড়িতে গ্যাসের অবস্থা স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। কিন্তু চলতি সপ্তাহের শেষ নাগাদ আবার শৈত্যপ্রবাহ নামার সম্ভাবনায় গ্যাস সঙ্কটের আতঙ্কে রয়েছেন এ এলাকার মানুষ। তীব্র শীতে যদি আগের মতো গ্যাস না থাকে তাহলে জীবন চলবে কিভাবে? এমন প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে স্থানীয়দের মনে।

এ বিষয়ে রায়েরবাজারের বাসিন্দা মো. আমিন বলেন, যেকোনো অজুহাতে বাসাবাড়িতে গ্যাস থাকে না। তখন রান্নাবান্না নিয়ে খুব খারাপ অবস্থায় পড়তে হয়। অনেক সময় এলপি গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করতে বাধ্য হতে হয়। সামর্থ না থাকলে বৈদ্যুতিক হিটার এবং কেরোসিনের স্টোভ ব্যবহার করতে হয়। এতে খরচ বাড়লেও কাজের কাজ কিছুই হয় না। আবার মাস শেষে ঠিকই গ্যাসের বিলও দিতে হয়।

তিনি বলেন, এই তো কয়েকদিন আগে শৈত্যপ্রবাহের সময় টানা ১০ দিন গ্যাস সঙ্কট ছিল। এখন একটু স্বাভাবিক হয়েছে। আবার শুনছি শৈত্যপ্রবাহ আসছে। তখন যদি একই অবস্থা হয় তাহলে ঢাকায় টিকে থাকাটাই কঠিন হয়ে পড়বে। একই কথা বলেন ট্যানারি মোড় এলাকার বাসিন্দা ইমরুল হক। তাদের সবাই গ্যাসের স্থায়ী সমাধান চান।

এমইউএইচ/ওআর/এআরএস/জেআইএম