আউশে সাড়ে ৩৯ কোটি টাকার প্রণোদনা দেবে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৪৬ পিএম, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০১:৫৪ পিএম, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

চলতি অর্থবছরে (২০১৭-১৮) আউশ আবাদে ২ লাখ ৩৭ হাজার ১৮২ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকে ৩৯ কোটি ৬২ লাখ ৮৩ হাজার টাকার প্রণোদনা দেবে সরকার। প্রণোদনার অংশ হিসেবে কৃষকরা রাসায়নিক সার ও বীজ পাবেন। সঙ্গে দেয়া হবে সেচ ও আগাছা দমনের খরচ।

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে ‘আউশ প্রণোদনা ২০১৭-১৮’ নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী এসব তথ্য জানান।

কৃষিমন্ত্রী জানান, উৎপাদন বৃদ্ধিতে উফশী আউশে ৬৪ জেলায় ৩২ কোটি ৩৩ লাখ ৫৩ হাজার ১৭০ টাকা, নেরিকা আউশে ৪০ জেলায় ৭ কোটি ২৯ লাখ ৩০ হাজার ৭৫ টাকার প্রণোদনা দেয়া হবে।

তিনি বলেন, এ প্রণোদনার কারণে আউশ ফসল আবাদে কৃষকা উৎসাহিত হবেন। হেক্টর প্রতি ফলন বৃদ্ধি পাবে, উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে এবং পতিত জমিগুলো আবাদের আওতায় আসবে।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘প্রণোদনাভুক্ত চাষীদের মধ্যে উফশী আউশে ২ লাখ ২ হাজার ৪১২ জন ও নেরিকা আউশের ক্ষেত্রে চাষীর সংখ্যা ৩৪ হাজার ৭৭০ জন। উফশী আউশ আবাদে প্রত্যেক কৃষক প্রতি বিঘার জন্য উপকরণ বাবদ এক হাজার ৫৯৭ টাকা এবং নেরিকা আউশ চাষে ২ হাজার ১১৫ টাকা করে পাবেন।’

প্রণোদনার কারণে অতিরিক্ত ৮২ হাজার ৫৭৪ মেট্রিক টন চাল এবং এক লাখ ২৪ হাজার ৬৯৯ টন খড় উৎপাদন হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘এতে আয় হবে ৩৪২ কোটি ৭৬ লাখ ৯৮ হাজার টাকা।’

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘উফশী আউশ আবাদে প্রত্যেক কৃষক ৫ কেজি বীজ, ২০ কেজি ইউরিয়া, ১০ কেজি করে ডিএপি ও এমওপি সার পাবেন। বিঘা প্রতি নেরিকা চাষবাদে প্রণোদনা হিসেবে প্রত্যেক কৃষক ৫ কেজি বীজ, ২০ কেজি ইউরিয়া, ১০ কেজি করে ডিএপি ও এমওপি সার পাবেন। সেচের জন্য ৫০০ টাকা আর আগাছা দমনের জন্য পাবেন ৪০০ টাকা।’

কবে নাগাদ কৃষক এ প্রণোদনা পাবেন জানতে চাইলে কৃষি সচিব মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ্ বলেন, ‘বোরো ফসল কাটার সঙ্গে সঙ্গে কৃষক যাতে প্রণোদনা পায় আমরা সেই ব্যবস্থা নিয়েছি। যাতে তাদের সময় নষ্ট না হয়। মার্চের শেষের দিক থেকে প্রণোদনা দেয়া শুরু হবে।’

সংবাদ সম্মেলনে কৃষি মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরএমএম/আরএস/পিআর