ক্যান্সার-যৌন রোগের ভেজাল ওষুধ আমদানি করতেন তিনি!

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪১ পিএম, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৯:৪২ পিএম, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

রাজধানীর নিকুঞ্জ-২ এলাকা থেকে কোটি টাকা মূল্যের বিপুল পরিমাণ নিষিদ্ধ বিদেশি ওষুধ এবং অবৈধ আমদানির শাড়ি-কাপড় জব্দ করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। আটক হওয়া ব্যক্তির নাম দেলোয়ার হোসেন। তিনি নওগাঁ জেলার মহাদেবপুরের মো. আবুল কাশেমের ছেলে।

এ ব্যাপারে র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক (সিও) লে. কর্নেল সারওয়ার বিন কাসেম জাগো নিউজকে বলেন, গোয়েন্দা তথ্য ছিল রাজধানীর খিলক্ষেত থানাধীন নিকুঞ্জ এলাকায় কতিপয় লোক দীর্ঘদিন যাবত অবৈধভাবে বিভিন্ন ধরনের আমদানি নিষিদ্ধ নিম্নমানের ভেজাল ওষুধ ও ওষুধের লেবেল এবং অবৈধভাবে আমদানি করে শাড়ি-কাপাড় বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে সংরক্ষণ করছে।

drug

ওই সংবাদের ভিত্তিতে সহকারী পুলিশ সুপার মো. নজমুল হক এবং সহকারী পুলিশ সুপার মো. কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করে দেলোয়ার হোসেনকে (৩৯) আটক করা হয়।

ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে এক লাখ টাকার শাড়ি-কাপড়সহ প্রায় এক কোটি টাকা মূল্যের আমদানি নিষিদ্ধ নিম্নমানের ভেজাল ওষুধ ও ওষুধের লেবেল, বিভিন্ন অফিসের ভুয়া সিল জব্দ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে আটক দেলোয়ার বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারে নাই। আমদানি নিষিদ্ধ বিভিন্ন নিম্নমানের ভেজাল ওষুধ ও শাড়ি-কাপড় সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে স্থল ও আকাশ পথে আনা হয়েছে।

drug

জিজ্ঞাসাবাদে দেলোয়ার আরও জানান, ক্যান্সার, যৌন ও হার্টের অপারেশন সংক্রান্ত রোগ নিয়ে মানুষের দুর্বলতা রয়েছে। সে সুযোগ নিয়েই দীর্ঘদিন যাবত অবৈধভাবে ক্যান্সার, যৌন রোগের ভেজাল ওষুধ আমদানি ও সংরক্ষণ এবং হার্টের রিং বিক্রি করে আসছিলেন। বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতালে বিক্রয় করে আসছেন। এছাড় জব্দ হওয়া শাড়ি-কাপড় সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে পার্শ্ববর্তী দেশ হতে চোরাইপথে আমদানি করে ক্রয়-বিক্রয় করে আসছেন বলে জানান। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

জেইউ/জেডএ/আইআই