বাল্যবিবাহ বন্ধে দরিদ্র মেয়েদের ভাতা দেবে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:১৪ পিএম, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

দরিদ্রতা, নিরাপত্তাহীনতা ও সামাজিক অসচেতনতার কারণে বাল্যবিবাহ হয়ে থাকে জানিয়ে মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেছেন, ‘দরিদ্র পরিবারের ১৫-১৮ বছরের মেয়েদের বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ এবং ভাতা দেয়ার কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার।’

রোববার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে বাংলাদেশ সরকার এবং ইউনিসেফের যৌথ আয়োজনে ‘আ স্কোপিং অ্যানলাইসিস অব বাজেট অ্যালোকেশন ফর এন্ডিং টাইল্ড ম্যারেজ ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক গবেষণা ফলাফলের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘সরকার বাল্যবিবাহের সংখ্যা শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনতে বদ্ধপরিকর। এ লক্ষ্যে সরকার আইন প্রণয়নসহ নানা ধরনের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। দরিদ্রতা, নিরাপত্তাহীনতা ও সামাজিক অসচেতনতার অভাবে বাল্যবিবাহ সংগঠিত হয়। দরিদ্র পরিবারের ১৫ থেকে ১৮ বছরের মেয়েদেরকে বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ এবং ভাতা দেয়ার কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার।’

‘এর লক্ষ্য হল যাতে তাদের অর্থনৈতিকভাবে সহযোগিতা করা যায় এবং আয় বর্ধক ব্যবসায় উদ্যোক্তা হিসাবে অংশগ্রহণ করতে পারে। এ কার্যক্রম চললে বাল্যবিবাহের সংখ্যা অনেক কমে যাবে।’

মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম বলেন, ‘কিশোর-কিশোরী ক্লাবের মাধ্যমে বাল্যবিবাহের কুফল সম্পর্কে কিশোর-কিশোরীদের সচেতন করা হবে যাতে তারা নিজেরাই বাল্যবিবাহ বন্ধ করতে পারে।’

গবেষণা প্রতিবেদন অনুযায়ী, সরকার বাল্যবিবাহ বন্ধে ৭টি ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম এবং ৫৭টি প্রকল্পের মাধ্যমে প্রতিবছর প্রায় ২৩ বিলিয়ন টাকা ব্যয় করে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক সহযোগিতায় এবং ইউনিসেফের কারিগরি সহযোগিতায় ‘স্ট্রেনদেনিং ক্যাপাসিটি ফর চাইল্ড-ফোকাসড বাজেটিং (এসসি-সিএফবি) প্রজেক্ট’ এর মাধ্যমে গবেষণা প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়।

মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব লায়লা জেসমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাহমুদা শারমিন বেনু, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. আজিজুল আলম, ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি কার্লোস আকোস্তা এবং ড. আবুল হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরএমএম/জেএইচ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :