এসিআর পাঠানোর বিলম্বিত সময় ৩ মাস

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:০৬ পিএম, ১৩ মার্চ ২০১৮

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বার্ষিক গোপনীয় অনুবেদন (এসিআর) সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানোর বিলম্বিত সময় এক বছরের পরিবর্তে তিন মাস করা হয়েছে।

মঙ্গলবার ‘সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীর জন্য বিদ্যমান গোপনীয় অনুবেদন-সংক্রান্ত অনুশাসন মালায় কতিপয় পরিবর্তন’ সংক্রান্ত পরিপত্র জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

পরিপত্রে বলা হয়, এসিআর দাখিল, অনুস্বাক্ষর ও প্রতিস্বাক্ষরসহ ডোসিয়ার (এমন নথি বা ফোল্ডার যেখানে এসিআরসহ চাকরি -সংক্রান্ত সব তথ্যাদি সংরক্ষণ করা হয়) সংরক্ষণকারী কর্তৃপক্ষের দফতরে পৌঁছানোর জন্য বিলম্বিত সময় এক বছরের পরিবর্তে তিনমাস নির্ধারণ করা হয়েছে। অর্থাৎ অনুবেদনাধীন কর্মকর্তার (যার এসিআর) জন্য নির্ধারিত সময় ৩১ জানুয়ারি এবং বিলম্বিত সময় ৩১ মার্চ। অনুবেদনকারী (অনুবেদনাধীন কর্মকর্তার নিয়ন্ত্রণকারী ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ) কর্মকর্তার জন্য নির্ধারিত সময় ২৮ বা ২৯ ফেব্রুয়ারি এবং বিলম্বিত সময় ৩০ এপ্রিল, প্রতিস্বাক্ষরকারী (অনুবেদনকারী কর্তৃপক্ষের নিয়ন্ত্রণকারী সরাসরি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ) কর্মকর্তার জন্য নির্ধারিত সময় ৩১ মার্চ এবং বিলম্বিত সময় ৩১ মে।

বিলম্বিত সময়ের পরে দাখিল করা অনুস্বাক্ষরিত এবং প্রতিস্বাক্ষরিত ও ডোসিয়ার সংরক্ষণকারী কর্তৃপক্ষের দফতরে প্রাপ্ত গোপনীয় প্রতিবেদন সরাসরি বাতিল বলে গণ্য হবে।

পরিপত্রে আরও বলা হয়, মাতৃত্ব ছুটিকালীন গোপনীয় অনুবেদন প্রযোজ্য নয়। এ ছুটির বিষয়টি সংশ্লিষ্ট ডোসিয়ার সংরক্ষণকারী কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানাতে হবে।

এসিআরে বিরূপ মন্তব্য করার আগে বিরূপ মন্তব্যকারী কর্মকর্তার গোপনীয় অনুবেদন সংক্রান্ত অনুশাসনমালা যথাযথভাবে অনুসরণ করে অনুবেদনাধীন কর্মকর্তাকে অবশ্যই মৌখিক ও লিখিতভাবে সতর্ক করতে হবে এবং সংশ্লিষ্ট ডোসিয়ার সংরক্ষণকারী কর্তৃপক্ষকে অনুলিপি পাঠিয়ে অবহিত করতে হবে। বিধি অনুযায়ী এমন পত্র জারি নিশ্চিত করতে হবে।

আরএমএম/এএইচ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :