নির্মাণ শ্রমিকদের নিরাপত্তা আইনের আওতায় আনা হবে

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:২৩ পিএম, ২৮ মার্চ ২০১৮ | আপডেট: ০৭:২৬ পিএম, ২৮ মার্চ ২০১৮
নির্মাণ শ্রমিকদের নিরাপত্তা আইনের আওতায় আনা হবে
ফাইল ছবি

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক বলেছেন, নির্মাণ শিল্পে নিরাপত্তার বিষয়টি আইনের আওতায় আনা হবে। বুধবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারর্স ইনস্টিটিউশন সেমিনার হলে ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়ন বাংলাদেশ-ইনসাব-এর জাতীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সম্প্রতি ওয়ার্ল্ড স্কিল ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিলের সদস্য হয়েছে। সরকার দক্ষতা উন্নয়ন কাউন্সিল-এনএসডিসির অধীনে সেক্টরভিত্তিক ৬ মাস বা ১ বছর মেয়াদি প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করবে এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শ্রমিকদের বিশ্বে অন্যান্য দেশের সমমানের সনদ প্রদান করা হবে। ফলে এনএসডিসি থেকে শ্রমিকরা বিশ্বমানের সনদ নিয়ে নির্দিষ্ট কাজে বিদেশে গেলে অন্যান্য দেশের শ্রমিকদের সমমানে মজুরি পাবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, শ্রমিকদের জন্য অংশগ্রহণমূলক ভবিষ্যৎ তহবিল-পিপিএফ গঠনের বিষয়টি সরকারের সক্রিয় বিবেচনায় রয়েছে। তিনি নির্মাণ শ্রমিকদের গুচ্ছ বীমায় নিয়মিত চাঁদা প্রদানের আহ্বান জানান।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, শ্রমিকদের পেশাগত অসুখের চিকিৎসার জন্য পিপিপির মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জে ৩শ’ শয্যা বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মাণ করা হচ্ছে। এ হাসপাতালে শুধু শ্রমিকদের জন্য ১শ’ শয্যা সংরক্ষিত থাকবে। শ্রমিকরা বিভিন্ন অসুখের জন্য পরীক্ষা-নিরীক্ষা এবং চিকিৎসার সুযোগ পাবে। শুধু শ্রমিকদের জন্য উন্নতমানের বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মাণ বর্তমান সরকারের একটি ঐতিহাসিক পদক্ষেপ।

নির্মান শ্রমিকসহ প্রাতিষ্ঠানিক-অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের শ্রমিকদের দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু দুরারোগ্য ব্যাধির চিকিৎসা, শ্রমিকের সন্তানদের উচ্চশিক্ষার জন্য শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন থেকে কোটি কোটি টাকা অর্থ সহায়তা করা হচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

সম্মেলনে ইনসাব-এর সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো. ওসমান গনির সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা সালাউদ্দিন খোকা মোল্লা, প্রধান উপদেষ্টা আব্দুস সাত্তার হাওলাদার এবং কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক একেএম শহিদুল হক ফারুক বক্তব্য দেন।

এফএইচএস/এমআরএম/এমএস