আইকাও’র নির্দেশনা মানছে না বেবিচক

রফিক মজুমদার
রফিক মজুমদার রফিক মজুমদার , জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৯ এএম, ২৯ মার্চ ২০১৮

ইন্টারন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন অর্গানাইজেশন-আইকাও এর নির্দেশনা মানছে না বেসরকারি বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)।

আইকাও নিয়ম অনুযায়ী, একজন এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলার টানা ডিউটি করতে পারেন সর্বোচ্চ ২ ঘণ্টা। জনবল সংকটের অযুহাতে এ নিয়ম মানছে না কর্তৃপক্ষ। এটিসি'তে দায়িত্বরত কন্ট্রোলাররা ১২ ঘণ্টা পর্যন্ত টানা কাজ করে যাচ্ছেন। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ৫০ জন এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলারের কাজ করান ১৯ জনকে দিয়ে। এর ফলে ২৪ ঘণ্টা মানসিক ও শারীরিক চাপের মধ্যে এবং ঝুকির মধ্যেই কাজ করে যাচ্ছেন শাহজালালে কর্মরত এটিসি'র কন্ট্রোলাররা।

বেবিচক সূত্রে জানা গেছে, দিনের বেলা একজন এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলারকে টানা ৬ ঘণ্টা দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। আর রাতের বেলা প্রায় ১২ ঘণ্টা পর্যন্ত টানা কাজ করে যাচ্ছেন কন্ট্রোলাররা।

সম্প্রতি নেপালের কাঠমান্ডু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ড্যাশ-৮ কিউ ৪০০ উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হওয়ার আগের ৪ মিনিটে এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল (এটিসি) ও পাইলটের মধ্যে দ্বিধান্বিত কথোপকথনের পর বিষয়টি সবাইকে ভাবিয়ে তোলে।

এ বিষয়ে বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল নাঈম হাসান জাগো নিউজকে বলেন, সংশ্লিষ্ট বিভাগে জনবল সংকট রয়েছে এটা মিথ্যা নয়, তবে অর্গানোগ্রাম অনুমোদন না হওয়ায় জনবল নিয়োগ দিতে পারছি না আমরা। বিষয়টি নিয়ে আমরা চিন্তা-ভাবনা শুরু করেছি।

উল্লেখ্য, বর্তমানে প্রতিদিন গড়ে ৫০০টি ফ্লাইট বাংলাদেশের আকাশপথ ব্যবহার করছে। এর মধ্যে উড্ডয়ন ও অবতরণজনিত চলাচল হয় গড়ে ২০০টি। বাকিগুলো হচ্ছে বাংলাদেশের আকাশপথ ব্যবহার করে যাওয়া ওভারফ্লাইং এয়ারক্রাপ্ট। প্রতিটি এয়ারক্রাপ্টের বৈমানিকের সঙ্গেই রেডিও তরঙ্গের মাধ্যমে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করেন এটিসি'তে দায়িত্বরত এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলার।

আরএম/এমবিআর/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :