হজের জন্য দুটি উড়োজাহাজ পেয়েছে বিমান

রফিক মজুমদার
রফিক মজুমদার , জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৪১ পিএম, ১৫ এপ্রিল ২০১৮ | আপডেট: ০৭:৪৩ পিএম, ১৫ এপ্রিল ২০১৮
হজের জন্য দুটি উড়োজাহাজ পেয়েছে বিমান

আসন্ন হজযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে প্রতি বারের মতো এবারও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ওয়েট লিজে উড়োজাহাজ ভাড়া নেয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছে। বোর্ডে চারটি উড়োজাহাজ সংগ্রহের অনুমোদন দিলে বিগত চার মাস চেষ্টা করে মালয়েশিয়ার ফ্লাই গ্লোবাল কোম্পানি থেকে দুটি উড়োজাহাজ সংগ্রহ করা হয়েছে। বাকি দুটি সংগ্রহের জন্য নতুন করে আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে।

বিমানের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ বলেন, আমাদের দেয়া শর্তাবলীর সঙ্গে দরদাতা মালয়েশিয়ার ফ্লাই গ্লোবাল কোম্পানির মিলে যাওয়ায় দুটি সুপরিসর (ওয়াইড বডি) উড়োজাহাজ লিজ নেয়া সম্ভব হয়েছে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ২০ নভেম্বর অনুষ্ঠিত বিমান পরিচালনা পর্ষদের ২০১তম সভায় ২০১৮ সালের হজ মৌসুমে বিমানের শিডিউল অপারেশন অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে চারটি সুপরিসর উড়োজাহাজ সংগ্রহের অনুমোদন দেয়া হয়। ৩০০ আসন বিশিষ্ট ওইসব উড়োজাহাজের বৈমানিক, কেবিন ক্রুসহ (ওয়েট লিজ) লিজের সিদ্ধান্ত হয়। ১৪ জুলাই থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর বিমানের বহরে থাকবে উড়োজাহাজগুলো।

জানা গেছে, বিগত হজ মৌসুমে নিজস্ব উড়োজাহাজের পাশাপাশি লিজের উড়োজাহাজেও হজযাত্রী পরিবহন করে বিমান। প্রতি বছরই এটি করা হয়ে থাকে। নিজস্ব উড়োজাহাজে হজ ফ্লাইট চালাতে গিয়ে সে সময় বিভিন্ন আন্তর্জাতিক রুটের ফ্লাইট শিডিউল কাটছাঁট করতে বাধ্য হয় সংস্থাটি। যার বিরূপ প্রভাব পড়ে অগ্রিম টিকিট কিনে রাখা যাত্রীদের ওপর। সেজন্য চলতি বছর আগে থেকেই সুপরিসর চারটি উড়োজাহাজ লিজ নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বিমান। আগে ভাগে সচেতন হলেও তেমন কাজ হয়নি।

উল্লেখ্য, বর্তমানে বিমানবহরে রয়েছে চারটি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর, চারটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ ও দুটি ড্যাশ-৮ কিউ ৪০০ উড়োজাহাজ। এসব উড়োজাহাজ দিয়ে ১৫টি আন্তর্জাতিক ও সাতটি অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে বিমান।

আরএম/এমআরএম/পিআর