মৃত্যুদণ্ড বিলোপসহ ইউপিআরের ৬০ সুপারিশে ঢাকার ‘না’

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৩৮ এএম, ১৮ মে ২০১৮

জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের ইউনিভার্সেল পিরিয়ডিক রিভিউয়ে (ইউপিআর) বিভিন্ন দেশের ২৫১টি সুপারিশের মধ্যে মৃত্যুদণ্ড বিলোপ, গুম থেকে নাগরিকদের সুরক্ষাসহ ৬০টি সুপারিশে সম্মতি দেয়নি বাংলাদেশ। আর ১৬৭টি সুপারিশে সম্মতি দিলেও ২৪টির ব্যাপারে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত জানানো হবে বলে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে । ইউপিআরের টুইট বার্তায় এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশে মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনা শেষে গতকাল (বৃহস্পতিবার) রাতে জেনেভায় জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের ইউপিআর ওয়ার্কিং গ্রুপের অধিবেশনে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন গৃহীত হয়েছে। অধিবেশনে বাংলাদেশ যে সব সুপারিশের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানায় নি সেগুলো আগামী সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠেয় জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের ৩৯তম অধিবেশনের মধ্যেই জানাতে হবে। এদিকে বাংলাদেশ ছাড়াও গত রাতে রাশিয়া ও আজারবাইজানের ইউপিআর বিষয়ক প্রতিবেদনও গৃহীত হয়েছে।

জানা গেছে, বাংলাদেশ যেসব প্রস্তাব গ্রহণ করতে রাজি হয়নি সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- মৃত্যুদণ্ড বিলোপ, গুম থেকে নাগরিকদের সুরক্ষাবিষয়ক আন্তর্জাতিক সনদে সই, শিশুশ্রম বন্ধে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার ১৩৮ ও ১৩৯ নম্বর সনদ অনুমোদন, নির্যাতনবিরোধী সনদের ঐচ্ছিক প্রটোকলে সই, সমকামিতাকে বৈধতা প্রদান, ১৯৫১ সালের শরণার্থী সনদ অনুমোদন, নারীর প্রতি বৈষম্য বিলোপ সনদের (সিডও) বিভিন্ন ধারা থেকে আপত্তি প্রত্যাহার, জাতিসংঘ মানবাধিকারবিষয়ক বিশেষ দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের সফরের অনুমতি প্রদান, হিজড়াসহ এলজিবিটি সম্প্রদায়ের মানবাধিকার রক্ষায় কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ, প্রস্তাবিত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের বিতর্কিত ধারাগুলো বাতিল, বৈদেশিক অনুদান আইন সংশোধন, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ক্ষুণ্ন করে এমন সব বিধান বাতিল, ‘আদিবাসী’ জনগোষ্ঠীকে রক্ষায় নীতি গ্রহণ এবং শরণার্থী ও রাষ্ট্রহীন মানুষের বিচার পাওয়ার অধিকার প্রদান।

এর আগে আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হকের নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদল গত সোমবার জেনেভায় ইউপিআর ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকে যোগ দিয়ে মানবাধিকার ইস্যুতে বাংলাদেশের অঙ্গীকার বাস্তবায়নের অগ্রগতি তুলে ধরেন। তিনি গুম, খুন, বিচারবহির্ভূত হত্যাসহ বিভিন্ন ইস্যুতে জাতিসংঘের সদস্য দেশগুলোর উদ্বেগের জবাব দেন এবং সরকারের অবস্থান তুলে ধরেন।

এমএমজেড/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :