‘পর্যটন স্পটের প্রচার বাড়লে বাড়বে বিদেশি পর্যটক’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৮ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

দেশের পর্যটন স্পটগুলো চিহ্নিত করে প্রচারণা চালালে বিদেশি পর্যটক বাড়বে। পর্যটক বাড়লে বাড়বে দেশি এয়ারলাইন্সগুলোর ফ্লাইট সংখ্যা। ফলে সম্প্রসারিত হবে এয়ারলাইন্স ব্যবসা।

শনিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবরে বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী ট্যুরিজম ফেস্টের শেষ দিনের আলোচনা সভায় বক্তরা এ কথা বলেন।

সভায় নভোএয়ারের হেড অব মার্কেটিং মেসবাহ উল ইসলাম, ইউএস-বাংলার জেনারেল ম্যানেজার (মার্কেটিং সাপোর্ট অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন) মো. কামরুল ইসলাম, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ম্যানেজার (মার্কেট রিসার্চ) এএসএম নজরুল ইসলাম, ম্যানেজার (পাবলিক রিলেশন) তাসমিন আক্তার, এভিয়েশন অ্যান্ড ট্যুরিজম জার্নালিস্ট ফোরাম অব বাংলাদেশের (এটিজেএফবি) সভাপতি নাদিরা কিরন, সাধারণ সম্পাদক তানজিম আনোয়ার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ইউএস-বাংলার জেনারেল ম্যানেজার কামরুল ইসলাম বলেন, ‘দেশে পর্যটনের অফুরন্ত সম্ভাবনা রয়েছে। পর্যটন স্পটগুলো চিহ্নিত করে প্রচারণা চালালে বিদেশি পর্যটক বাড়বে। পর্যটক বাড়লে দেশি এয়ারলাইন্সগুলোর ফ্লাইটের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। যা সামগ্রিকভাবে অর্থনীতিকে গতিশীল এবং কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করবে।’

নভোএয়ারের হেড অব মার্কেটিং মেসবাহ উল ইসলাম বলেন, ‘মানুষ এখন অনেক বেশি ভ্রমণ পিপাসু। পর্যটন খাতের বিকাশ হলে এভিয়েশন খাত আরও গতিশীল হবে। আমরা পর্যটনবান্ধব ট্যুর প্ল্যানিং নিয়ে যাত্রীদের সেবা দেয়ার চেষ্টা করছি।’

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ম্যানেজার (মার্কেট রিসার্চ) এএসএম নজরুল ইসলাম বলেন, ‘সরকার পর্যটন ও এভিয়েশন খাতকে গুরুত্ব দিচ্ছে। বিমানবন্দরগুলোর রানওয়ে সম্প্রসারণসহ অবকাঠোমো উন্নয়ন হচ্ছে। এয়ারলাইন্সগুলো যাত্রীবান্ধব এবং পর্যটক আকর্ষণের ব্যবস্থা নিলে এ খাত অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।’

এটিজেএফবি সাধারণ সম্পাদক তানজিম আনোয়ার বলেন, ‘পর্যটন স্পটগুলোতে নিরাপত্তা বৃদ্ধি ও যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত হলে আরও বেশি আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু হবে। দেশি এয়ারলাইন্সগুলোকে যাত্রী সেবার মান বাড়াতে হবে, একইসঙ্গে ফ্লাইট শিডিউল ঠিক রাখতে হবে।

বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের সহযোগিতায় এবং এটিজেএফবির আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় তিন দিনব্যাপী এ ট্যুরিজম ফেস্ট।

আরএম/এএইচ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :