৪ অক্টোবর থেকে উন্নয়ন মেলা, উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:১৭ পিএম, ০২ অক্টোবর ২০১৮

‘উন্নয়নের অভিযাত্রায় অদম্য বাংলাদেশ’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ৪-৬ অক্টোবর দেশের সব জেলা, উপজেলায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে চতুর্থ উন্নয়ন মেলা-২০১৮।

মঙ্গলবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের করবী মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে তথ্য উপস্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মুখ্য সচিব নজিবুর রহমান।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৪ অক্টোবর সকাল ১০টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে একযোগে দেশের সব জেলা, উপজেলা পর্যায়ে এ মেলার উদ্বোধন করবেন।

নজিবুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে বাংলাদেশের উন্নয়নের গতিধারা অব্যাহত থাকার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন বিশ্ব নেতারা। তরুণ প্রজন্ম উন্নয়ন মেলায় এসে যেন নিজেদের নতুনভাবে আবিষ্কার করে সে আয়োজন থাকছে।

তিনি বলেন, মেলায় উদ্ভাবনী কিছু বিষয় থাকবে। শহরের সুবিধা কীভাবে গ্রামে পৌঁছাবে সেটা তরুণ প্রজন্ম উপলব্ধি করতে পারবে এই মেলায়। এই মেলায় ডেল্টা প্ল্যানটা আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে ধরা হবে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব বলেন, যে কোনো দেশের উন্নয়নে নেতৃত্ব একটা বিষয়। আমাদের উন্নয়ন নেতৃত্ব থাকবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার বিশেষ উদ্যোগে জনগণের অংশীদারিত্ব বৃদ্ধি করা এ মেলার অন্যতম উদ্দেশ্য।

তিনি বলেন, ঢাকার জেলা প্রশাসন শেরেবাংলা নগর আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার মাঠ প্রাঙ্গণে এবারের চতুর্থ জাতীয় উন্নয়ন মেলা-২০১৮ আয়োজন করেছে। এ মেলায় স্টল থাকবে ৩৩০টি। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সামগ্রিক তত্ত্বাবধানে মেলায় অংশগ্রহণ করবে সরকারের সব মন্ত্রণালয় ও অধিদফতর।

নজিবুর রহমান বলেন, জাতীয় উন্নয়ন মেলার ৩ দিনে ৩টি সেমিনারের আয়োজন থাকবে মেলা প্রাঙ্গণে। উন্নয়ন মেলায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে দেশবাসী দেশের সামগ্রিক উন্নয়নে বর্তমান সরকার গৃহীত নানামুখী কর্মসূচি সম্পর্কে অবহিত হতে পারবেন। সেইসঙ্গে বিভিন্ন দফতর থেকে ওয়ানস্টপ সার্ভিসের মাধ্যমে পাবেন কাঙ্ক্ষিত সেবা।

এ সময় উন্নয়ন মেলায় নতুন পুরনো প্রজন্মের সম্মিলন ঘটবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি।

এ মেলায় ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে উজ্জীবিত করতে নানা কর্মসূচি থাকবে। উন্নয়নের নেতৃত্ব ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার উপর নানা প্রদর্শনী হবে। এ মেলায় শিক্ষার্থীদের নিয়ে অভিভাবকদের আসার অনুরোধ জানিয়েছেন মুখ্য সচিব।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজিবিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান, তথ্য সচিব এম এ মালেক ও ইআরডি সচিব প্রমুখ।

এইউএ/জেএইচ/এমএস