খুকুমনির ঘাতক স্বামীর ফাঁসি দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:২২ পিএম, ০২ নভেম্বর ২০১৮

যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় জাজিরা উপজেলায় পদ্মার দুর্গম চরে গৃহবধূ খুকুমনির ঘাতক স্বামী ইমান ব্যাপারীর সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে খুকুমণি হত্যার বিচারের দাবিতে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে এ দাবি জানান শরীয়তপুরের ‘জাজিরার সতেচন নাগরিক সমাজ’।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গত ২৪ অক্টোবর জাজিরায় পদ্মার দুর্গম বাবুর চরে যৌতুকের টাকার জন্য এক সন্তানের মা খুকুমনিকে (২৫) নির্মমভাবে হত্যা করেছে যৌতুকলোভী পাষণ্ড স্বামী ইমান ব্যাপারী ও তার পরিবার। ইমান দীর্ঘদিন ধরে যৌতুকের জন্য খুকুমনিকে মারধর করতো। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৪ অক্টোবর সন্ধ্যায় সে খুকুমনিকে লোহার দণ্ড (শাপাল) দিয়ে পিটিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। এরপর অভিযোগ এড়াতে গলায় মশার কয়েল দিয়ে পুড়িয়ে কালো দাগ বানিয়ে আত্মহত্যা প্রমাণের চেষ্টা করে।

তারা বলেন, এ ঘটনায় মামলা নেয়া হলেও খুকুর পরিবার ও আমরা সচেতন শরীয়তপুরবাসী বিচার পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় আছি। কেননা ইতোপূর্বে শরীয়তপুরে ঘটে যাওয়া কোনো নারী নির্যাতন, ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু বিচার হয়নি। এই বিচারহীনতার সংস্কৃতি আমাদের শঙ্কিত করে। আমরাও কি ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হবো?

তারা বলেন, ওই দুর্গম চরে শান্তি ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে অনতিবিলম্বে খুকুমনি হত্যাকাণ্ডের মূল হোতা ইমান ব্যাপারীসহ তার দোসরদের বিচরের আওতায় আনতে হবে।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আলোর পথের সভাপতি আমিনুল ইসলাম রতনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, খুকুর বাবা হারুন জমাদ্দার, আলোর পথের সমন্বয়ক ফারুক আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক এস এম এনায়েত খান, ছাত্রলীগ নেতা সুমন বেপারী, ধানমন্ডি থানা বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ রুবেল, ব্যবসায়ী শেখ শাহিন প্রমুখ।

এএস/এমএমজেড/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :