নির্বাচনে সোয়া দুই কোটি টাকা চায় গণযোগাযোগ অধিদফতর

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৩৪ পিএম, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮

সরকারি অর্থে নির্বাচনী প্রচার চালাবে গণযোগাযোগ অধিদফতর। এ জন্য প্রচারণার কর্মকৌশল ও খরচের খাতওয়ারি পরিকল্পনা নির্বাচন কমিশনে জমা দিয়েছে অধিদফতরটি। ৩ ডিসেম্বর এ সংক্রান্ত চিঠি ইসিতে দেয়া হয়।

গণযোগাযোগ অধিদফতরের চিঠিতে বলা হয়, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত ২ ডিসেম্বর সভায় সরকারিভাবে নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর সিদ্ধান্ত হয়। দেশের ৬৪টি জেলা তথ্য অফিস ও পার্বত্য অঞ্চলে উপজেলা পর্যায়ে ৪ তথ্য অফিসসহ ৬৮ তথ্য অফিসের মাধ্যমে নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর জন্য দ্রুত কর্মপরিকল্পনা ও বাজেট বরাদ্দের প্রস্তাবতা পাঠাতে বলা হয়। এ নির্দেশনার আলোকে গণযোগাযোগ অধিদফতর এরমধ্যে তাদের পরিকল্পনা কমিশনে জমা দিয়েছে।
সূত্র জানায়, চারটি পন্থায় নির্বাচন প্রচারণা চালাবে অধিদফতর। এগুলো হলো- সড়ক প্রচার বা মাইকিং, উদ্ধুদ্ধকরণ চলচিত্র প্রদশর্নী, উদ্ধুদ্ধকরণ সংগীতানুষ্ঠান এবং পোস্টার, লিফলেট বিতরণ ও প্রদর্শন।

প্রতিটি জেলায় মাকিং করা হবে। প্রতিদিনের মাইকিং ৩০ হাজার হিসেবে পনের দিনের জন্য বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে ৩০ লাখ ৬০ হাজার টাকা।

উদ্ধুদ্ধকরণ চলচিত্র প্রদর্শনে প্রতিবার খরচ ধরা হয়েছে ৪ হাজার টাকা। এ হিসাবে ১৫ দিনের বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে ৪০ লাখ ৮০ হাজার টাকা।

উদ্ধুদ্ধকরণ সংগীতানুষ্ঠানে আয়োজনে প্রতিবার খচর ধরা হয়েছে ২০ হাজার টাকা । ৫ দফায় এ খাতে খরচ হবে ৬৮ লাখ টাকা।
এবং পোস্টার, লিফলেট বিতরণ ও প্রদর্শন খাতে সর্বমোট ব্যয় ধরা হয়েছে ২৫ লাখ টাকা। সব মিলিয়ে দেখানো হয়েছে ১ কোটি ৬৪ লাখ ৪০ হাজার টাকা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে যুগ্ম সচিব এসএম আসাদুজ্জামান বৃহস্পতিবার জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমরা গণযোগাযোগ অধিদফতরের কর্ম পরিকল্পনা ও বাজেট পেয়েছি। আগামী দু-তিনদিনের মধ্যে এ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেয়া হবে।’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ এবং ১০ ডিসেম্বর এবং ভোটগ্রহণ আগামী ৩০ ডিসেম্বর।

এইচএস/এনডিএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :