সমন্বিত পরিকল্পনা নিশ্চিতে প্রয়োজন উপজেলা-ইউনিয়ন সেন্টার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৪০ পিএম, ১২ জানুয়ারি ২০১৯

দেশের সমন্বিত পরিকল্পনা নিশ্চিত করতে উপজেলা ও ইউনিয়ন সেন্টার পরিকল্পনা প্রয়োজন বলে মত দিয়েছেন পরিকল্পনাবিদরা।

শনিবার বাংলামোটরে বিআইপি কনফারেন্স কক্ষে পরিকল্পনাবিদ পেশাজীবীদের সংগঠন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের (বিআইপি) বার্ষিক সাধারণ সভায় এ মত দেন আলোচকরা।

উপদেষ্টা পরিষদের আহ্বায়ক পরিকল্পনাবিদ অধ্যাপক ড. গোলাম রহমান উপস্থাপিত প্রতিবেদনে বলেন, বিআইপিকে ভবিষ্যতে নগর ব্যবস্থাপনা ও নগর পরিকল্পনার সব স্তরে, বিশেষ করে শহর ও নগরের মহাপরিকল্পনা এবং বিশদ অঞ্চল পরিকল্পনাসমূহের সঠিকভাবে বাস্তবায়নের প্রয়োজনীয়তার স্বার্থে নগর উন্নয়ন সংস্থাগুলোকে ক্রমাগত পরামর্শ ও নিরীক্ষণের দায়িত্ব বা সহায়তা করতে হবে।’

বক্তারা আরও বলেন, আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানে ঢাকা বসবাসের অযোগ্য শহর হিসেবে ইতোমধ্যে বিবেচিত হয়েছে। বাংলাদেশের জাতীয় পেশাজীবী সংগঠন হিসেবে বিআইপিকে এ বিষয়ে গবেষণা ও পরিকল্পনার নিরিখে সরকার ও অন্যান্য পেশাজীবী সংগঠনের মতামত সাপেক্ষে বিশেষ করণীয় নির্ধারণ করতে হবে। সেই সঙ্গে পরিকল্পনাবিদদের নিয়োগ এবং কাজের ব্যাপ্তি নিয়ে বিআইপিকে জাতীয় পর্যায়ে আন্দোলন ও নিজেদের পেশাগত স্বার্থ উদ্ধারের জন্য ক্রমাগত কার্যক্রম চালাতে হবে।

বিআইপির ১৩তম কার্যনির্বাহী পরিষদ আয়োজিত এ বার্ষিক সাধারণ সভায় ইনস্টিটিউটের যুগ্ম সম্পাদক পরিকল্পনাবিদ মুহাম্মদ মাজহারুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইনস্টিটিউটের সহ-সভাপতি পরিকল্পনাবিদ অধ্যাপক ড. আকতার মাহমুদ।

সভায় উপস্থিত পরিকল্পনাবিদরা পরিকল্পনা পেশার উন্নয়ন, চাকরির ক্ষেত্রে পরিকল্পনাবিদদের সুযোগ সম্প্রসারণ, প্ল্যানিং ক্যাডার চালু, পেশাজীবী সংস্থা হিসাবে পরিকল্পনাবিদদের পেশাগত উন্নয়নে বিআইপির করণীয় এবং বিআইপিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য পরিকল্পনাবিদদের করণীয়সহ বিভিন্ন পরামর্শ দেন। এ ছাড়াও সব উপজেলাভিত্তিক মহাপরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের মাধ্যমে সব গ্রাম ও ইউনিয়নের মধ্যে সমন্বয় সাধন করে গ্রাম পর্যায়ে নাগরিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চতকরণের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। বর্তমান সরকারের লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী ইউনিয়ন সেন্টার পরিকল্পনা জরুরি বলে মত দেন পরিকল্পনাবিদরা।

এএস/এনডিএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :