এবার ‘রবিনহুডের’ স্যুয়ারেজের খাল থেকে ব্যাগবন্দি কুকুরছানা উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:২৬ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০১৯

গত ২২ জানুয়ারি দুপুর ২টা। অজ্ঞাত রফিকুল ইসলাম ফোন করে জানান, আফতাব নগরের পার্শ্ববর্তী বনশ্রীর স্যুয়ারেজের খালে একটি জীবন্ত কুকুরছানাকে ব্যাগবন্দি অবস্থায় মাঝ বরাবর বেঁধে রাখা হয়েছে। এমন একটি জায়গা, যেখানে সাধারণ কারও পক্ষে পৌঁছানো সম্ভব নয়।

ফোন পেয়েই কালবিলম্ব না করে টিম নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান ‘এনিমেল কেয়ার ট্রাস্ট বাংলাদেশ'র কর্ণধার আফজাল খান। দীর্ঘ আড়াই ঘণ্টা লেগে যায় কুকুরছানাটির অবস্থান নির্ণয়ে। অনেক চেষ্টার পর একটি ছোট নৌকা ম্যানেজ করে বস্তাবন্দি ছানাটির কাছে পৌঁছান তারা। সক্ষম হন মুখবন্ধ ব্যাগটি নৌকায় উঠাতে।

ব্যাগের মুখ খোলার সাথে সাথে সেখান থেকে বেরিয়ে আসে ছোট্ট একটি কুকুরছানা। কুচকুচে কালো ও দুর্গন্ধযুক্ত ময়লা পানিতে দীর্ঘক্ষণ থাকায় ছানাটি বেশ অসুস্থ হয়ে পড়ে। ততক্ষণে আশেপাশে উৎসুক জনতার ভিড়। পুরো বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছিল তারা। উদ্ধার তৎপরতা সমাপ্ত হলে উল্লাসও প্রকাশ করেন অনেকে।

afzal-khan

আফজাল খান ও তার দলের তত্ত্বাবধানে কুকুরছানাটি এখন বেশ সুস্থ।

দিন নেই রাত নেই, এমন অনেক ফোন আফজাল খানের কাছে আসে নিয়মিত। ফোন পেয়েই তিনি ছোটেন বিপদগ্রস্ত পশু-পাখি উদ্ধারে। এ প্রসঙ্গে আফজাল জানান, প্রায় আট বছর ধরে ঝুঁকিপূর্ণ স্থান থেকে কুকুর-বিড়াল উদ্ধার করছেন তিনি। এমন প্রায় ৫০টি কুকুর-বিড়াল তার বাড়ির ছাদে অত্যন্ত যত্নের সঙ্গে পালিত হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, অনেক সময় সিনেমা-নাটকের অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও আসেন তার বাড়িতে। মূলত তার কাছে আশ্রিত অবলা প্রাণীদের প্রেমেই তারা ছুটে আসেন। আদর-যত্ন করেন।

‘প্রাণীদের প্রতি জয়া আহসানেরও (অভিনেত্রী) অনেক প্রীতি রয়েছে। অনেক ব্যস্ততার পরও তিনি এসব প্রাণীর খোঁজ-খবর নেন। সন্তানের মতো তাদের আদর-যত্ন করেন’- বলেন আফজাল খান।

‘তবে আশ্রিত ৫০টির মতো কুকুর-বিড়ালের সেবাযত্ন অত্যন্ত ব্যয়বহুল ও কষ্টসাধ্য। পর্যাপ্ত আর্থিক সহযোগিতা না পাওয়ায় অনেক সময় উদ্ধারকাজসহ এসব প্রাণীর যথাযথ সেবাযত্ন করা সম্ভব হয় না।’

afzal-khan

‘ভবিষ্যতে আরও বড় পরিসরে অবলা এই প্রাণীকূলের জন্য একটি সেফ হোম করার স্বপ্ন আছে। এজন্য সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা প্রয়োজন’- বলেন ‘রবিনহুড’ খ্যাত আফজাল খান।

অবলা ও নিরীহ এসব পশু-পাখির প্রতি দেশের মানুষকে আরও সহনশীল ও মানবিক হওয়ারও আহ্বান জানান ‘রবিনহুড দ্য অ্যানিমেল রেসকিউয়ার’ টিমের সদস্যরা।

এমএআর/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :