শরীয়তের সঙ্গে তরিক্বতের সমন্বয়ই কাগতিয়া দরবার

মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন
মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন , আমিরাত প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৫:৫০ এএম, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

 

বিপথগামী উচ্ছৃঙ্খল যুব সমাজকে সঠিকপথে ফিরিয়ে আনতে হযরত গাউছুল আজমের তাওয়াজ্জুহভিত্তিক এ মহান সিলসিলার বিকল্প নাই উল্ল্যেখ করে কাগতিয়া আলীয়া গাউছুল আজম দরবার শরীফের মহান মোর্শেদ, আওলাদে রাসূল (দঃ) হযরতুলহাজ্ব আল্লামা অধ্যক্ষ শায়খ ছৈয়্যদ মহান মোর্শেদে আজম মাদ্দাজিল্লুহুল আলী ছাহেব বলেছেন, ফরজ ইবাদাতের মাধ্যমে আল্লাহর নৈকট্য অর্জিত হয়।

তিনি বলেন, বান্দা আল্লাহর নৈকট্যে স্থায়ী হয় নফল ইবাদাতের মাধ্যমে। তাই ফরজের পাশাপাশি নফল ইবাদাতের গুরুত্ব অপরিসীম। এ তরিক্বতের অনুসারীদের ফরজের পাশাপাশি ঘটনাক্রমে কোন ওয়াক্তের অজিফা শরীফ বাদ পড়লে ঐ দরুদ শরীফেরও ক্বাজা আদায় করতে হয়।

শুক্রবার (৮ ফেব্রুয়ারি) শুক্রবার বাদে জুমা চট্টগ্রামের পূর্ব রাউজান রশিদরপাড়া জামে মসজিদ সংলগ্ন ময়দানে পবিত্র জশনে জুলুছে ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ) ও কাগতিয়া দরবারের প্রতিষ্ঠাতা খলিলুল্লাহ আওলাদে মোস্তফা খলিফায়ে রাসূল হযরত শায়খ ছৈয়্যদ গাউছুল আজম রাদ্বিয়াল্লাহু আন্হুর স্মরণে আয়োজিত এশায়াত মাহফিলে উপস্থিত হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলমানের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন।

ইমাম ছানাউল্লাহ পানিপথি (রাহঃ) এর উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি আরও বলেন, শরীয়ত থেকে তরিক্বত ভিন্ন মনে করা মূর্খতা বরং তরিক্বতের পরশে শরীয়ত পূর্ণতা লাভ করে। হযরত গাউছুল আজমের তরিক্বত পরিপূর্ণ শরীয়তে আবৃত, যেখানে শরীয়তের খেলাফ নাই বিন্দুমাত্র। কাগতিয়া আলীয়া দরবার শরীফের তরিক্বতেই আছে শরীয়তের সাথে তরিক্বতের পরিপূর্ণ সমন্বয়।

মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটি বাংলাদেশ ২০১নং চারাবটতল শাখার উদ্যোগে রশিদরপাড়া আসহাবে সুফ্ফা য্বু সংঘের সার্বিক সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত এশায়াত মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আবুল মনছুর।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটি বাংলাদেশ ওলামা পরিষদের সচিব হযরতুলহাজ্ব আল্লামা মুফতি কাজী মুহাম্মদ আনোয়ারুল আলম সিদ্দিকী, সহ-এশায়াত সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ শাহজান নোমান, মাওলানা মুহাম্মদ রেজা উদ্দীন, মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল করিম, মাওলানা মুহাম্মদ আলী আকবর বেলায়তী ও মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ্।

সভাপতির বক্তব্যে ড. আবুল মনছুর বলেন, পাশ্চাত্য সংস্কৃতির প্রভাবে আমাদের যুব সমাজের ˆনতিক চরিত্রের চরম অবক্ষয়ের সময়ে কাগতিয়া আলীয়া গাউছুল আজম দরবার শরীফের চলমান কার্যক্রমের মাধ্যমে যুব সমাজকে প্রিয় নবীর বাতেনী নূর দিয়ে ইনসানে কামেলে পরিণত করছেন।

মাহফিলে স্থানীয় বহু গণ্যমান্য ব্যক্তি, আলেম, ছাত্র, শিক্ষক ও ব্যবসায়ী ছাড়াও সর্বস্তরের হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলমান উপস্থিত ছিলেন।
অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সহ-সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মুহাম্মদ তসলিম উদ্দীন, চবি’র গণিত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. জালাল আহমদ, ৭নং ইউপি চেয়ারম্যান বি.এম জসিম উদ্দীন হিরু, উপাধ্যক্ষ মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, অধ্যাপক মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, অধ্যাপক মুহাম্মদ অলি আহাদ চৌধুরী, মাষ্টার মুহাম্মদ সোলাইমান, মুহাম্মদ ওবাইদুল হান্নান সুরুজ, মাস্টার ফিরোজ আহমদ, মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম, ডা. মুহাম্মদ আব্দুল হাকিম, আলহাজ্ব মুহাম্মদ শফিউল আজম প্রমুখ।

মিলাদ ও কিয়াম শেষে প্রধান অতিথি দেশ, জাতি ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ্র ঐক্য, সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি এবং দরবারের প্রতিষ্ঠাতা গাউছুল আজম রাদ্বিয়াল্লাহু আন্হুর ফুয়ুজাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন।

এমআরএম