কৃষক-ক্ষেতমজুর সমাবেশ ১০ এপ্রিল

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:৪৯ পিএম, ১৯ মার্চ ২০১৯
৯ দফা দাবিতে গত মাসে মানববন্ধন করে কৃষক ও ক্ষেতমজুর সংগ্রাম পরিষদ

কৃষকের ফসলের লাভজনক দাম, ইউনিয়ন পর্যায়ে সরকারি শস্য ক্রয় কেন্দ্র চালুসহ ৯ দফা দাবিতে সারাদেশের কৃষক-ক্ষেতমজুরদের অংশগ্রহণে আগামী ১০ এপ্রিল ঢাকায় সমাবেশের ডাক দিয়েছে কৃষক-ক্ষেতমজুর সংগ্রাম পরিষদ।

মঙ্গলবার বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ৯টি কৃষক-ক্ষেতমজুর সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত কৃষক-ক্ষেতমজুর সংগ্রাম পরিষদের সভায় এ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। পরিষদের সমন্বয়ক কাজী সাজ্জাদ জহির চন্দনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন কৃষকনেতা সাইফুল হক, আব্দুস সাত্তার, আনোয়ার হোসেন রেজা, বজলুর রশিদ ফিরোজ, আলমগীর হোসেন দুলাল, লিয়াকত আলী প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, কৃষক ফসল ফলিয়ে লাভজনক দাম না পেয়ে লোকসান গুনে নিঃস্ব হচ্ছে। ধানসহ অন্যান্য ফসল বিক্রির বাজার ব্যবস্থাপনা মধ্যস্বত্বভোগীরা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করে। ফলে কৃষক প্রকৃত দাম পায় না।

ইউনিয়ন পর্যায়ে ক্রয় কেন্দ্র চালু করে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ফসল ক্রয় করতে হবে। কৃষি উৎপাদনে ব্যাংক থেকে ক্ষুদ্র ঋণ নিয়ে ফসল বিক্রি করে লোকসান গুনে সময়মত ঋণ পরিশোধ করতে না পারায়, সার্টিফিকেট মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। সারাদেশে ১ লক্ষ ৬৮ হাজার সাার্টিফিকেট মামলার হয়রানির শিকার হয়েছে কৃষকরা। অবিলম্বে এসব মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান তারা।

তারা আরও বলেন, ক্ষেতমজুররা সারা বছর কাজ পায় না। জিনিসপত্রের ঊর্ধ্বমূল্যের ফলে গরিব ক্ষেতমজুররা দুর্বিষহ জীবনযাপন করে। তাদের সারা বছর কাজ ও পল্লী রেশনিং চালু করার দাবি জানান নেতৃবৃন্দ।

সভায় সারাদেশের কৃষক-ক্ষেতমজুর সংগঠনসমূহকে ১০ এপ্রিল সমাবেশ সফল করার জন্য গ্রাম বৈঠক, হাঁটসভা, প্রচারপত্র ছাপিয়ে বিলি করে কৃষক-ক্ষেতমজুরদের সংগঠিত করার আহ্বান জানানো হয়।

এফএইচএস/এমএসএইচ/এমএস