নির্বাচন কমিশনার ব্যক্তিগত মত দিতে পারে কি না সেটাই প্রশ্ন

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০২:০৩ পিএম, ২৫ মার্চ ২০১৯

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘একজন নির্বাচন কমিশনার নির্বাচন কমিশনের সার্বিক বক্তব্যের বাইরে গিয়ে ব্যক্তিগত মতামত রাখতে পারে কি না সেটাই হচ্ছে বড় প্রশ্ন।’ উপজেলা নির্বাচন নিয়ে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদারের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তিনি তার প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই এ মন্তব্য করেন।

আজ (সোমবার) সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপিকে ভাঙার প্রয়োজন নেই। আমরা চাই বিএনপি একটি শক্তিশালী দল হিসেবে টিকে থাকুক এবং গণতন্ত্রের অভিযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে অবদান রাখুক। কিন্তু বিএনপি নিজেই নিজেকে দুর্বল করার সিদ্ধান্ত নিয়েই এগোচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘গতকাল অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচনে ছোটখাটো কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটলেও মোটামুটিভাবে স্বাভাবিক একটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। অন্যান্য সময়কার স্থানীয় সরকার নির্বাচনের তুলনায় এ পর্যন্ত যে উপজেলা নির্বাচনগুলো অনুষ্ঠিত হয়েছে সেগুলো অনেক শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে বরাবরই নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি নিয়ে একটি প্রশ্ন উপস্থাপন করার চেষ্টা করা হয়। বিএনপি যদি অংশগ্রহণ করত তাহলে ভোটার উপস্থিতি আরও ভালো হত। কিন্তু এ পর্যন্ত যে ভোটার উপস্থিতি হয়েছে আমি মনে করি তা অত্যন্ত সন্তোষজনক।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘গতকাল ভোটার উপস্থিতি সন্তোষজনক ছিল। এখনো ভোট গণনা চলছে তবে আমি নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আলাপ করে জেনেছি মোটামুটি ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে।’

ইতোপূর্বে আরও যে দুইদফা উপজেলা নির্বাচন হয়েছে তাতে প্রথম দফায় ৪৩ শতাংশ ও দ্বিতীয় দফায় ৪১ শতাংশ ভোট পড়েছিল।

হাছান মাহমুদ গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে একটি তথ্য তুলে ধরে বলেন, ‘১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্টের যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল তাতে ভোটার টানার ছিল ৩৭ শতাংশ। যে নির্বাচনটি ছিল বাঙালির জন্য একটি টার্নিং পয়েন্ট। যুক্তফ্রন্টের সেই নির্বাচনের তুলনায় এখন যে উপজেলা নির্বাচনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে তাতে ভোটার টার্ন আউট বেশি।’

এমইউ/এমআরএম/পিআর/এমএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :