ভোক্তা সচেতন হলে ঠকার সম্ভাবনা থাকে না : বাণিজ্যমন্ত্রী

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৬:৫৩ পিএম, ০২ মে ২০১৯
ফাইল ছবি

ভোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, ন্যায্যমূল্যে মানসম্পন্ন পণ্য নিশ্চিত করতে ভোক্তাকেই এগিয়ে আসতে হবে। ভোক্তা সচেতন হলে ঠকার সম্ভাবনা থাকে না।

বৃহস্পতিবার (২ মে) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর আয়োজিত বিশ্ব ভোক্তা দিবসের আলোচনা সভায় বাণিজ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ভোক্তাদের আরও সচেতন হতে হবে। ভোক্তার ন্যায্য অধিকার নিশ্চিত করতে সরকার কাজ করছে। অন্যায়ভাবে ভোক্তাকে ঠকানো যাবে না। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর এ জন্য নিরলসভাবে কাজ করছে।

সভায় বাণিজ্য সচিব মো. মফিজুল ইসলাম, কনজুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) সভাপতি ও সাবেক সচিব গোলাম রহমান এবং জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম লস্কর বক্তব্য রাখেন।

মন্ত্রী বলেন, উন্নত হতে হলে দুর্নীতিমুক্ত হতে হবে। আমরা যদি নিজ নিজ অবস্থান থেকে দুর্নীতিমুক্ত হয়ে কাজ করি তাহলে দেশকে এগিয়ে নেয়া কঠিন হবে না। ভোক্তার অধিকার সুরক্ষায় সরকার ২০০৯ সালে জাতীয় ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদফতর প্রতিষ্ঠা করেছে। ভোক্তার অধিকার রক্ষায় দেশব্যাপী অভিযান চালানো হচ্ছে। জেলা, উপজেলা এমনকি ইউনিয়ন পর্যায়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণে কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগের চেয়ে ভোক্তারা এখন অনেক সচেতন।

টিপু মুনশি বলেন, দেশটা সবার। বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর জন্য সবাইকে কাজ করতে হবে। সম্মিলিতভাবে কাজ করলে কোনো কিছুই কঠিন বা অসম্ভব নয়। ভোক্তার অধিকার প্রতিষ্ঠা হলে নিরাপদ মানসম্পন্ন পণ্য নিশ্চিত হবে।

উল্লেখ্য, বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস-২০১৯ উপলক্ষে জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজা থেকে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে গিয়ে শেষ হয়। বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস ২০১৯ উপলক্ষে রচনা প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ ও স্কুল পর্যায়ের বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

এফএইচএস/এএইচ/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :