হকারদের অবরোধে রোজাদারদের ভোগান্তি চরমে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২৭ পিএম, ০৭ মে ২০১৯

পুনর্বাসনের দাবি আদায়ে রাজধানীর গুলিস্তান সড়ক অবরোধ করেছে উচ্ছেদ হওয়া হকাররা। সকাল থেকে অপেক্ষা করে সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে কোনো ধরনের সাড়া না পেয়ে সড়ক অবরোধ করেন তারা।

এদিকে হকারদের অবরোধের কারণে গুলিস্তানসহ আশপাশের এলাকায় যান চলাচল স্থবির হয়ে পড়ে। ফলে ঘরমুখো রোজাদারদের ভোগান্তি চরমে ওঠে।

gulistan

বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়ন সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) সামনে অবস্থান ও বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু করে হকার্স ইউনিয়ন। বেলা ১১টায় দেখা করার কথা বলেছিলেন ডিএসসিসি মেয়র সাঈদ খোকনের। কিন্তু বিকেল গড়ালেও তিনি হকারদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেননি। মেয়রের অবর্তমানে সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে অন্য কেউ কোনো ধরনের যোগাযোগও করেননি। তাই বিকেলে সড়ক অবরোধ করেন হকাররা।

ডিএসসিসি, গোলাপ শাহ মাজারের সামনে অবস্থান করায় এ অঞ্চলে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে সাধারণ যাত্রীরা চরম দুর্ভোগে পড়েন। অনেককে এ সময় হেঁটে গন্তব্যে যেতে দেখা যায়।

gulistan

বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার হায়াত জাগো নিউজকে বলেন, আমরা ফুটপাতে খাসজমিতে ব্যবসা করতাম। আমাদের উচ্ছেদ করা হয়েছে। কিন্তু পুনর্বাসনের যে ঘোষণা ছিল তা বাস্তবায়ন করা হয়নি। পুনর্বাসনের উদ্যোগ না নেয়ার আগেই আমাদের উচ্ছেদ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা চার মাস ধরে বেকার। আমাদের কোনো আয় নেই। বউ-বাচ্চা নিয়ে কঠিন দুরবস্থার মধ্য দিয়ে দিন যাপন করছি। আমাদের পুনর্বাসনের উদ্যোগ না নেয়া পর্যন্ত সড়ক থেকে সরবো না।

gulistan

সেকেন্দার হায়াত বলেন, আমরা যে যেখানে বসতাম, সেখানে বসার অনুমতি দেওয়া হোক। আমরা এ দেশেরই নাগরিক। আমাদের জন্য ফুটপাতের তিন ভাগের এক ভাগ ব্যবসার জন্য দেওয়া হোক। বিনিময়ে আমরা সরকারকে নিয়ম অনুযায়ী টাক্স দেবো। সন্ধ্যার পর হকার ইউনিয়ন বসে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণার হুমকিও দেন সেকেন্দার হায়াত।

এ ব্যাপারে ডিএমপি’র মতিঝিল বিভাগের মতিঝিল জোনের এডিসি শিবলী নোমান বলেন, হকাররা রাস্তা অবরোধ করেছিল। জনভোগান্তির বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে হকারদের অবরোধ কর্মসূচি প্রত্যাহারের অনুরোধ জানালে তারা অবরোধ তুলে নিয়েছে। এখন যান চলাচল স্বাভাবিক।

জেইউ/এমএসএইচ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :