বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে ব্যাপক কর্মসূচি নেবে শিল্প মন্ত্রণালয়

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:১৯ পিএম, ১৫ মে ২০১৯

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে শিল্প মন্ত্রণালয় ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করবে। এসব কর্মসূচির মাধ্যমে ১৯৪৭ সালে পাকিস্তান সৃষ্টি থেকে শুরু করে ‘৫২ এর ভাষা আন্দোলন, ’৫৪ এর যুক্তফ্রন্ট, ’৬৬ এর ৬ দফা আন্দোলন, ’৬৯ এর গণঅভ্যুত্থান, ’৭০ এর সাধারণ নির্বাচন, ’৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ এবং স্বাধীনতার পর দ্বিতীয় বিপ্লবের কর্মসূচিসহ বাঙালি জাতির রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক মুক্তিতে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক অবদান তুলে ধরা হবে।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বুধবার (১৫ মে) শিল্প মন্ত্রণালয়ের কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

শিল্পসচিব মো. আবদুল হালিমের সভাপতিত্বে সভায় শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এবং শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার উপস্থিত ছিলেন। এতে শিল্প মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দফতর/সংস্থার প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বছরব্যাপী শিল্প মন্ত্রণালয় কেন্দ্রীয়ভাবে এবং মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দফতর/সংস্থাগুলো পৃথকভাবে কর্মসূচি গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। কর্মসূচির মধ্যে সেমিনার, আলোচনা সভা, মোটর শোভাযাত্রা, সড়ক দ্বীপ ও ভবনে দৃষ্টিনন্দন আলোকসজ্জা ইত্যাদি থাকবে।

এছাড়া শিল্প মন্ত্রণালয় এবং এর আওতাধীন সংস্থাগুলোর প্রধান ফটকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি, বঙ্গবন্ধুর বর্ণাঢ্য জীবন সংগ্রামের চিত্র, শিল্প উৎপাদন, শিল্পখাতের উন্নয়ন ইত্যাদি নিয়ে তৈরি ব্যানার, ফেস্টুন ইত্যাদি দিয়ে সাজানো হবে।

সভায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয়ভাবে আয়োজিত বিভিন্ন কর্মসূচিতে শিল্প মন্ত্রণালয় অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে বলে সিদ্ধান্ত হযেছে।

সভায় শিল্পমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কাছে বাঙালি জাতি চিরঋণী। ব্যাপক কর্মসূচির মধ্য দিয়ে তার জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করে এ ঋণের কথা স্মরণ করতে হবে। জাতীয়ভাবে অনুষ্ঠিত কর্মসূচিতে শিল্প মন্ত্রণালয়ের ব্যাপক অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার নির্দেশনা দেন তিনি।

শিল্প প্রতিমন্ত্রী এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালার ব্যাপক প্রচারের তাগিদ দেন। তিনি বলেন, পত্রিকার পাশাপাশি অন্যান্য মাধ্যমেও গৃহীত কর্মসূচির প্রচার করতে হবে। এ ধরনের প্রচারের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভূমিকা তুলে ধরতে হবে। বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে শিল্প মন্ত্রণালয়ের ঐতিহাসিক সম্পর্কের কথা তুলে ধরে তিনি ১৯৫৬ সালে শিল্পমন্ত্রী হিসেবে বঙ্গবন্ধুর অবদান তুলে ধরতে লাগসই কর্মসূচি গ্রহণের পরামর্শ দেন।

এর আগে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ‘রাষ্ট্রপতির শিল্প উন্নয়ন পুরস্কার ২০১৭’ প্রদানের লক্ষ্যে মনোনয়ন চূড়ান্তকরণ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ‘রাষ্ট্রপতির শিল্প উন্নয়ন পুরস্কার ২০১৭’ এর মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হয়। রাষ্ট্রপতির সম্মতি সাপেক্ষে দিন নির্ধারণ করে এ পুরস্কার বিতরণ করা হবে বলে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এসআই/এমবিআর/পিআর