সেই কুসুমবাগে উচ্ছেদ অভিযান, সময় না দেয়ায় বাসিন্দাদের ক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৫:০৫ পিএম, ১৪ জুলাই ২০১৯
শনিবার সকালে নগরের খুলশী থানার ডেবারপাড় কুসুমবাগ এলাকায় একটি টিনের ঘরে পাহাড়ের কিছু অংশ ধসে পড়ে

চট্টগ্রাম নগরীর খুলশী থানার ডেবারপাড় কুসুমবাগ এলাকায় পাহাড় ধসে শিশুসহ দুজন আহতের পরদিনই ওই এলাকায় পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারীদের সরাতে অভিযান শুরু করেছে জেলা প্রশাসন। তবে স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, কোনো ধরনের পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই আজ সকাল থেকে উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু করা হয়।

রোববার (১৪ জুলাই) সকাল থেকে অভিযান চালিয়ে অন্তত ৫০টি পরিবারকে উচ্ছেদ করা হয়েছে। অভিযানে নেতৃত্ব দেন আগ্রাবাদ সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) শারমিন আখতার।

তিনি জানান, পাহাড়ের কোনো বাসিন্দাকেই ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে বসবাস করতে দেবে না জেলা প্রশাসন। এ লক্ষ্যে কুসুমবাগ এলাকায় পাহাড় থেকে পঞ্চাশের কাছাকাছি পরিবারকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

তবে স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, প্রায় ২০ বছর ধরে এ এলাকায় বসবাস করলেও কখনোই উচ্ছেদ হতে হয়নি তাদের। আবাসিকের বাইরে একটি ঝুপড়ি ঘরে মাটি ভেঙে পড়ার ঘটনায় কোনো ধরনের পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই আজ সকাল থেকে উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু করা হয়। অন্তত এক সপ্তাহ হাতে পেলে তারা নিজেদের অন্যত্র সরিয়ে নিতে পারতেন। অনেক পরিবারকে সব মালপত্র ঘরে রেখেই এক কাপড়ে বেরিয়ে আসতে হয়েছে।

প্রসঙ্গত, শনিবার (১৩ জুলাই) সকালে নগরের খুলশী থানার ডেবারপাড় কুসুমবাগ এলাকায় পাহাড় ধসে শিশুসহ দুজন আহত হন। একটি টিনের ঘরে পাহাড়ের কিছু অংশ ধসে পড়লে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় শিশু নুসরাত ও রেহেনা বেগম নামে এক নারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আবু আজাদ/বিএ/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :