‘জলাবদ্ধতা নিরসনে খালগুলো দখলমুক্ত করতে হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২১ পিএম, ১৬ জুলাই ২০১৯

রাজধানীর জলাবদ্ধতা বিষয়ে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, আমাদের নদী যেভাবে দখলমুক্ত করতে পারছি, সেভাবে খালগুলোকেও দখলমুক্ত করতে হবে। নদী-খালগুলো দখলমুক্ত করতে পারলে আমাদের সিটি কর্পোরেশনের যেসব ড্রেন আছে সেগুলো দিয়ে খুব সহজেই পানি নেমে যাবে। তখন আর এমন জলবদ্ধতার সৃষ্টি হবে না।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর মেরুল বাড্ডায় আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারে বৃক্ষরোপণ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

মেয়র আতিকুল বলেন, আমরা চিহ্নিত করছি কোথায় কোথায় জলবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। কালশী খাল, সাংবাদিক কলনী এলাকায় ৩০ বছর ধরে জলাবদ্ধতা ছিল, আমরা সেখানে কাজ করছি।

তিনি আরও বলেন, মশক নিধনে আমাদের ডিএনসিসির সংশ্লিষ্টরা সঠিকভাবে মশার ওষুধ দিচ্ছে কি না, সেটা সঠিকভাবে মনিটরিং করা আমাদের দায়িত্ব। ডিএনসিসির ওয়েবসাইটে কে কোন দিন মশার ওষুধ কোন এলাকায় ছিটাবে তার নাম, ফোন নম্বর ওয়েবসাইটে দেয়া হয়েছে। সেই সব মশক নিধন কর্মী বা সুপারভাইজার যে যেই এলাকাতে যাবে, সেই এলাকার কমিটির চারজনের স্বাক্ষর নিয়ে আসতে হবে। আমরা সেই স্বাক্ষর দেখে বুঝবো যে তারা মশার ওষুধ সঠিকভাবে ছিটিয়ে এসেছে। সবাইকে জবাবদিহিতার মধ্যে আনতে চাই। আমরা ডিএনসিসির পক্ষ থেকে ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়া বিষয়ক জনসচেতনতা সৃষ্টিতে কাজ করে যাচ্ছি।

শুভ আষাঢ়ী পূর্ণিমায় বাংলাদেশ বুদ্ধিস্ট ফেডারেশন-ইয়ুথ প্রতি বছরের ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে ‘সবুজে বাঁচি, সবুজে বাঁচাই, এসো বিহারে বিহারে গাছ লাগাই’- স্লোগানে দেশের সব বিহারে এই কর্মসূচি পালন করছেন তারা।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপ দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, বাংলাদেশ বুদ্ধিস্ট ফেডারেশন-ইয়ুথের সভাপতি কাজল বড়ুয়া, সাধারণ সম্পাদক প্রসেনজিৎ বড়ুয়া প্রমুখ।

এএস/এমএসএইচ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :