দেশের উন্নয়নে প্রকৌশলীদের ভূমিকা অপরিসীম

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:২৬ পিএম, ১৭ জুলাই ২০১৯

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশের (আইইবি) প্রেসিডেন্ট এবং আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর বলেছেন, দেশের সার্বিক অবকাঠামোগত উন্নয়ন, প্রযুক্তিগত উৎকর্ষ সাধন এবং দেশের উন্নয়নে প্রকৌশলীদের ভূমিকা অনস্বীকার্য। দেশে প্রতিটি ক্ষেত্রে প্রকৌশলীরা সুনামের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন। প্রকৌশলীরা আজ শুধু দেশে নয় সারাবিশ্বে সুনামের সঙ্গে কাজ করছেন।

বুধবার আইইবি মিলনায়তনে ‘অ্যাসোসিয়েট মেম্বর অব দ্য ইনিস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স’ (এএমআইই)-এর ৭৮তম ব্যাচের ওরিয়েন্টেশন প্রোগামে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর বলেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর প্রকৌশলীদের সুযোগ-সুবিধা আগের তুলনায় অনেক বাড়িয়েছেন। যার ফলে এখন দেশের মেধাবী সন্তানরা আর বিদেশমুখী হচ্ছেন না। দেশে থেকেই দেশের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন।

আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে দেশ আজ মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। যা এখন আর কল্পনা বা অনুমানের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই, বিষয়টি এখন দৃশ্যমান। বিশ্বব্যাংক, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক বা এ ধরনের যে সমস্ত সংস্থা রয়েছে, তাদের সকলেরই অভিমত, বাংলাদেশ সামনের পাঁচ বছরের মধ্যে একটি মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তরিত হবে। বর্তমান বাংলাদেশ সরকারও দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে যে, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি মধ্যম আয়ের দেশ হবে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ পৃথিবীর উন্নত দেশের কাতারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে।

আইইবি প্রেসিডেন্ট বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার রাষ্ট্রক্ষমতা হাতে নেয়ার পরপরই রাষ্ট্র পরিচালনায় এমন কিছু পরিকল্পনা গ্রহণ করে; যার ফলে দিন দিন দেশের মাথাপিছু আয় বাড়তে থাকে, দেশের অর্থনীতি দিন দিন চাঙ্গা হয়ে উঠতে থাকে। অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি দেশের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ, বিদ্যুৎ, কৃষি এবং অন্যান্য সেক্টরে উন্নয়নের হাওয়া বইতে থাকে। অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি যদি শিক্ষার উন্নয়ন না ঘটে, সে অর্থনৈতিক উন্নয়ন স্থায়ী রূপ পেতে পারে না। তবে আশার কথা, আমাদের দেশে অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি শিক্ষা ও মানবসম্পদের উন্নতি সমান্তরালভাবে এগিয়ে চলেছে বঙ্গবন্ধুকন্যা দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই।

অনুষ্ঠানে আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী শাহাদাৎ হোসেন শিবলুর সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. ওয়ালিউল্লাহ সিকদার। বিশেষ অতিথি ছিলেন- আইইবি ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মো. নুরুজ্জামান, প্রকৌশলী এসএম মনজুরুল হক মঞ্জু, প্রকৌশলী মোল্লা মোহাম্মদ আবুল হোসেন, ড. প্রকৌশলী এমএম সিদ্দিক, আইইবির সম্মানী সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী খন্দকার মনজুর মোর্শেদ।

অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- আইইবির এএমআইইর পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ও বাংলাদেশ প্রফেশনাল ইঞ্জিনিয়ার্স রেজিস্ট্রেশন বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. প্রকৌশলী দীপক কান্তি দাশ।

এইউএ/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :