‘জনসেবায় সম্মিলিত উদ্যোগকে গুরুত্ব দিতে হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৫৮ পিএম, ২৪ আগস্ট ২০১৯

প্রধানমন্ত্রীর লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী উন্নত দেশ গঠনে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জনের জন্য দেশের জনগোষ্ঠীর কর্মদক্ষতা বাড়ানো এবং জনসেবায় সরকারি-বেসরকারি সম্মিলিত উদ্যোগের ওপর গুরুত্ব দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দীর্ঘ সংগ্রামী জীবন। দেশ স্বাধীন করার সংগ্রামে তার দূরদর্শিতা ও বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক কর্মসূচির জুড়িই ছিল না। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের সাম্প্রতিক নানা আর্থসামাজিক উন্নয়নের বিষয়গুলো তিনি তুলে ধরেন।

শনিবার ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) উদ্যোগে এফবিসিসিআই সম্মেলনকক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতি নিয়ে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিমের সভাপতিত্বে এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি এম এ কাশেম, মাহবুবুর রহমান, কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ, মীর নাসির হোসেন এবং এ কে আজাদ আলোচনায় অংশ নেন।

অনুষ্ঠানে সালমান এফ রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যেহেতু জাতির পিতা, তাই শুধু আওয়ামী লীগই নয় বরং দেশের সকল রাজনৈতিক দলেরই তাদের কার্যক্রমে যথাযথ সম্মানের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ব্যবহার করা উচিত।

এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, বঙ্গবন্ধু তার দূরদর্শী নীতিমালা ও প্রচেষ্টায় দেশকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। আর বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের পর এখন টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের নৃশংস ঘটনা না ঘটলে বাংলাদেশ আরও অনেক আগেই তার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে যেত।

এরপর বঙ্গবন্ধুর ‘জীবন ও কর্ম’ নিয়ে এক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এফবিসিসিআই সম্মেলককক্ষে প্রদর্শনীটির উদ্বোধন করেন।

এমইউএইচ/বিএ/এমকেএইচ