সারাদেশে দুদকের ছয় এনফোর্সমেন্ট অভিযান

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:৩২ পিএম, ২৫ আগস্ট ২০১৯

রাজধানীসহ সারাদেশে ছয়টি এনফোর্সমেন্ট অভিযান পরিচালনা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। রোববার (২৫ আগস্ট) রাজধানীর ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুরসহ নোয়াখালীর সোনাইমুড়িতে এ অভিযান চালানো হয়।

সোনাইমুড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক ডাক্তার চিকিৎসাসেবা প্রদান না করে প্রাইভেট প্রাকটিস করার অভিযোগে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। সমন্বিত জেলা কার্যালয়, নোয়াখালীর উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে সোনাইমুড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ অভিযান পরিচালিত হয়। সংগৃহীত তথ্যাবলি এবং সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছে দুদক টিম।

সরেজমিনে গিয়ে দুদক টিম দেখা পান, ৩৩তম বিসিএস স্বাস্থ্য ক্যাডারের এ কর্মকর্তা রয়েল হসপিটাল ইউনিটি-২ এ রোগী দেখেন, এমনকি তিনি তার প্যাডে উল্লেখ করেছেন, প্রতিদিন দুপুর ১টা হতে রাত ৮টা পর্যন্ত তিনি গাইনি, প্রসূতি, বন্ধ্যাত্ব ও স্ত্রী রোগের চিকিৎসা করে থাকেন। অথচ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডিউটি রোস্টারে তাকে প্রতি সপ্তাহের শনি ও রোববার দুপুর আড়াইটা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত এবং সোম ও বুধবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত জরুরি বিভাগের দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইলেকট্রনিক অ্যাটেনডেন্স পর্যালোচনায় দেখা যায়, ডিউটি রোস্টারে উল্লেখিত সময়ে তিনি রোগী দেখেননি। চলমান আগস্ট মাসে তিনি মাত্র দুইদিন বিকেলে অফিস করেছেন। উল্লেখিত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য কমিশনের অনুমোদন চেয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন উপস্থাপন করবে দুদক টিম।

এদিকে রাজধানীর মোহাম্মদপুরে সরকারি খাল দখল করে ভবন নির্মাণের অভিযোগে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিটে অভিযোগ আসে মোহাম্মদপুরের কাটাসুর খাল দখল করে বহুতল ভবন, এমনকি হাউসিং তৈরি করেছে কতিপয় প্রভাবশালী ব্যক্তি। পরে প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক নেয়ামুল আহসান গাজীর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

দুদক টিম সংশ্লিষ্ট সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর এবং ধানমন্ডি ভূমি অফিসের ভূমি সহকারী কর্মকর্তাকে সঙ্গে নিয়ে অভিযোগস্থল প্রত্যক্ষ করেন। টিম জানতে পারে, উল্লেখিত খালটি ১৯৯৫-৯৬ সালে অধিগ্রহণের মাধ্যমে ওয়াসা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক গৃহীত হয়। তবে সরেজমিন অভিযানে দুদক টিমের নিকট প্রতীয়মান হয়, অব্যবস্থাপনার কারণে খালটির অনেকখানি বন্ধ হয়ে গেছে এবং বেশ কিছু জায়গায় ঘরবাড়ি গড়ে উঠেছে। এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য কমিশনের অনুমোদনক্রমে দুদক টিমের পক্ষ হতে ওয়াসা কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করবে।

এছাড়া অসাধু কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দালালের মাধ্যমে ঘুষের বিনিময়ে পাসপোর্ট প্রদানের অভিযোগে, সড়ক সংস্কার কাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগে, গির্জা ও কবরস্থানের সম্পত্তি সাব-কবলা রেজিস্ট্রির মাধ্যমে আত্মসাৎ করার অভিযোগে, সরকারি মহিলা কলেজে ঠিক মতো ক্লাস না করে কোচিং বাণিজ্য করার অভিযোগে যথাক্রমে সমন্বিত জেলা কার্যালয়, ঢাকা-২, সমন্বিত জেলা কার্যালয় কুষ্টিয়া, সমন্বিত জেলা কার্যালয় সিলেট এবং সমন্বিত জেলা কার্যালয় হবিগঞ্জে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক এনফোর্সমেন্ট টিম।

এমইউ/আরএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]