বন্যাদুর্গত প্রতিবন্ধীদের জন্য ৬০টি জাহাজ নির্মাণ করবে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২১ পিএম, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
জাহাজের নকশা

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বলেছেন, সরকার বন্যাদুর্গত এলাকায় প্রতিবন্ধী ও সাধারণ লোকদের দ্রুত সরিয়ে নিতে ৬০টি জাহাজ তৈরি করবে। তিনি বলেন, প্রতিবন্ধীদের মতামতের ভিত্তিতে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে কাজ শুরু করা হবে এবং প্রতি বছর ২০টি করে জাহাজ তৈরি করা হবে। প্রতিটি নৌযান তৈরিতে ৪৫ লাখ টাকা ব্যয় হবে। জাহাজগুলো ১০ টন ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন হবে বলে জানান তিনি।

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ‘ডিজঅ্যাবিলিটি ইনক্লুসিভ ডিজাস্টার রিস্ক ম্যানেজমেন্ট’ বাস্তবায়ন-সংক্রান্ত জাতীয় টাস্কফোর্স-সংক্রান্ত বৈঠক শেষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান এসব কথা বলেন। এ সময় ‘ডিজঅ্যাবিলিটি ইনক্লুসিভ ডিজাস্টার রিস্ক ম্যানেজমেন্ট’ বাস্তবায়ন-সংক্রান্ত জাতীয় টাস্কফোর্সের প্রধান উপদেষ্টা মিস সায়মা হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

এনামুর রহমান বলেন, ‘আমাদের দুর্যোগ বা বন্যার সময় পানি ঢুকে ঘরবাড়ি ভেসে যায়। এ দুর্যোগের সময় গবাদিপশুসহ লোকদের অন্যত্র সরানোর জন্য যানবাহনের প্রয়োজন হয়। এ ছাড়া দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জেলা পর্যায়ে আলোচনা করে জেনেছি, দুর্যোগপ্রবণ এলাকায় ত্রাণ সামগ্রিক সহায়তা দেয়ার জন্য যানবাহন পাওয়া যায় না। এজন্য টাস্কফোর্সের উপদেষ্টা গত এপ্রিল মাসে জেনেভায় সাইড ইভেন্ট আয়োজন করে নৌযানের মডেল দেখিয়েছিলেন। সিডিডি সেন্টার ফর ডিজঅ্যাবিলিটি ডিজাস্টার সেই নকশা তৈরি করেছিল।’

তিনি বলেন, ‘বন্যাদুর্গত প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় সে ধরনের একটি করে নৌযান দেয়ার ব্যবস্থা করতে বাংলাদেশে ফিরে এসে নৌবাহিনীর সহায়তায় ডকইয়ার্ডে যে ইঞ্জিনিয়ার আছে, তার সঙ্গে আলোচনা করে নানা সুবিধা সম্বলিত একটি নকশা চূড়ান্ত করা হয়। সেই নকশার আজ অনুমোদন দেয়া হয়েছে। তবে কিছু শর্ত দিয়েছে। সেটা হলো প্রতিবন্ধীদের ব্যবহার উপযোগী করে তাদের মতামতের ভিত্তিতে নির্মাণকাজ শুরু করতে হবে।’

আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে কাজ শুরু করতে ইঞ্জিনিয়ারদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, তারা তিন বছরে ৬০টি নৌযান তৈরি করবে। প্রতি বছর ২০টি করে তৈরি করা হবে। নৌযানগুলো ১০ টন ক্যাপাসিটিসহ ১০০ জন লোক ক্যারি করতে পারবে। যানগুলো যেকোনো দ্বীপসহ চরাঞ্চলে নিয়ে যাওয়া যাবে। জাহাজগুলো যেকোনো দুর্যোগ মোকাবিলা করতে সক্ষম হবে।

নতুন জাহাজ নির্মাণে মোট ২৭ কোটি টাকা ব্যয় হবে বলে জানান ডা. এনামুর রহমান। তিনি বলেন, এজন্য কোনো টেন্ডার আহ্বান করা হবে না। সরকার টু সরকার প্রকল্প এটি বাস্তবায়ন করবে।

এমইউএইচ/এসআর/এমএস