বুড়িগঙ্গা পারাপারে চালু হচ্ছে ওয়াটার বাস

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৫৩ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯
ফাইল ছবি

যাত্রীদের দুর্ভোগ লাঘবে বুড়িগঙ্গা নদী পারাপারে সদরঘাট-কেরানীগঞ্জের মধ্যে শিগগিরই চারটি ওয়াটার বাস চালু হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) উন্নয়ন, আর্থিক ও প্রশাসনিক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বিআইডব্লিউটিসির ১২টি ওয়াটার বাস রয়েছে। এরমধ্যে বুড়িগঙ্গা নদীতে পর্যটন কাজে ব্যবহারের জন্য একটি ওয়াটার বাস প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানের কাছে ভাড়া দেয়া হয়। বাকি ১১টি গাবতলী থেকে ওয়াইজঘাট এবং নারায়ণগঞ্জ থেকে টঙ্গী রুটে চলাচল করছে। সেগুলোর মধ্য থেকে চারটি ওয়াটারবাস সদরঘাট ও কেরানীগঞ্জের মধ্যে বুড়িগঙ্গা নদী পারাপারে ব্যবহৃত হবে।

বৈঠকে বিআইডব্লিউটিসির সকল যাত্রীবাহী জাহাজ ও ফেরি সার্ভিসে যাত্রী সেবার মান বাড়ানোর নির্দেশনা দেয়া হয়।

waterbus-2

বৈঠকে জানানো হয় যে, বিআইডব্লিউটিসির চারটি কন্টেইনার জাহাজ এমভি উদয়ন, এমভি উদ্দীপন, এমভি উত্তরণ এবং এমভি উন্নয়ন এক্সপ্রেস ২০১৮ সালের নভেম্বর থেকে গত ৩১ আগস্ট পর্যন্ত আটমাসে সাড়ে চার কোটি টাকা আয় করেছে।

বিআইডব্লিউটিসি ২০১৩ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০১৯ এর আগস্ট পর্যন্ত ছয়টি ফেরি রুটে ওয়েব্রিজ স্কেল (ওজন মাপার স্কেল) থেকে ৯৭ কোটি টাকা এবং রেকার থেকে ২০১৯ এর আগস্ট মাসে এক কোটি টাকা আয় করেছে।

বিআইডব্লিউটিসি ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ১০টি ফেরি রুটে ৩০ লাখ ৪৮ হাজার ৬২৯টি বাস, ট্রাক এবং হালকা যানবাহন পারাপার করেছে। বর্তমানে ৪৫টি ফেরি চালু রয়েছে। আরো ১২টি ফেরি সংগ্রহ এবং ১৯টি নতুন ফেরিরুট সমীক্ষার কাজ চলমান রয়েছে বলে বৈঠকে জানানো হয়েছে।

বৈঠকে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আবদুস সামাদ এবং বিআইডব্লিউটিসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরএমএম/এসএইচএস/পিআর