২০২১ সালের আগেই ইউনিয়ন ভূমি অফিসে হাই স্পিড ইন্টারনেট : পলক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৪০ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

২০২১ সালের আগেই ইউনিয়ন পর্যায়ের ভূমি অফিসে হাইস্পিড ফাইবার অপটিক ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ভূমি মন্ত্রণালয়ে ‘ই-নামজারির সক্ষমতা মূল্যায়নে গবেষণালব্ধ ফলাফল’ শীর্ষক এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল ইউনিভার্সিটির পিএইচডি ক্যান্ডিডেট মার্টিন ম্যাটসন, ইন্টারন্যাশনাল গ্রোথ সেন্টারের কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. ইমরান মতিন প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, প্রায় ৩০ লাখ মামলা কোর্টে পেন্ডিং রয়েছে। এর মধ্যে বেশির ভাগই হচ্ছে ভূমি সংক্রান্ত মামলা। ভূমি খাতটা পুরোপুরি ডিজিলাইজেশন হয়ে গেলে মামলার জট অর্ধেক কমে যাবে।

তিনি বলেন, ভূমি ডিজিটালাইজেশনের জন্য প্রথমে বিদ্যুৎ দরকার। এরপরই হচ্ছে ইন্টারনেট সংযোগ। ইন্টারনেট সংযোগ না দিতে পারলে ডিজিটালাইজেশন সম্ভব নয়। তাই আগামী ২০২১ সালের আগেই ইউনিয়ন পর্যন্ত যে সাড়ে তিন হাজার ভূমি অফিস রয়েছে সবগুলোই হাইস্পিড ফাইবার অপটিক ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগের আওতায় নিয়ে আসবো। এখন উপজেলা পর্যন্ত ই-মিউটেশনসহ অন্যান্য কাজগুলো হচ্ছে। এটাও ২০২১ সালের মধ্যে ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারব।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, এছাড়া আগামী ২০২১ সালে মধ্যে ভূমি খাতকে পুরোপুরি ডিজিটালাইজেশনের সব ধরনের সফটওয়্যার সার্ভিসের ব্যবস্থা করা হবে। এ জন্য আমরা একটা ট্রেনিং প্রোগ্রাম চালু করব।

তিনি আরও বলেন, আমরা এখন ই-গভর্নেন্স থেকে এম-গভর্নেন্সে রূপান্তরিত হচ্ছি। আমরা এখন মোবাইল ফাস্ট -এই একটা অ্যাপ্রোচে এগুচ্ছি। যতগুলো সার্ভিস রয়েছে সবগুলো ওয়েবসাইটের মাধ্যমে হচ্ছে। এটা এখন আমরা ডিজাইন করছি, যেন মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে এসব সেবা দেয়া যায়। এটা আমরা ২০২৫ সালের মধ্যে করতে চাই।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, আইসিটি খাতে গত দশ বছরে প্রায় ১০ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান তৈরি করতে পেরেছি। এ খাতে ২০২৫ সালের মধ্যে আরও ১০ লাখ কর্মী তৈরি করতে পারব। আজ থেকে ১০ বছর আগে ৫৬ লাখ ইন্টারনেট ব্যবহার করত। এখন সেটা সাড়ে ৯ কোটি ছাড়িয়ে গেছে।

এমইউএইচ/আরএস/জেআইএম