পায়রা বন্দর ব্যবহার করতে পারবে নেপাল ভুটান ভারত

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৪২ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

রেলপথ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, বাংলাদেশে আঞ্চলিক রেল যোগাযোগ নেটওয়ার্কের সুবিধা তৈরি করা হয়েছে। যার ফলে নেপাল, ভুটান ও ভারতের একটি অংশ, বিশেষ করে দক্ষিণ-পূর্ব ভারত পায়রা বন্দর ব্যবহার করতে পারবে।

বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে ‘ডেডিকেটেড ফ্রেইট করিডর ফর বাংলাদেশ রেলওয়ে’ শিরোনামে নলেজ এক্সচেঞ্জ কর্মশালায় তিনি এসব কথা বলেন।

নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, ‘রেল সেক্টরে টেকসই উন্নয়নের জন্য বাংলাদেশ সরকার দীর্ঘ ৩০ বছরের মাস্টারপ্ল্যান অনুমোদন করেছে। ক্রমান্বয়ে রেলের উন্নতি হবে। রেলের যেসব মাস্টারপ্ল্যান রয়েছে সেগুলোর কাজ চলছে।’

রেলের মাস্টারপ্ল্যানের উল্লেখযোগ্য অংশ হিসেবে তিনি বলেন, ‘পদ্মা সেতু রেল লিঙ্ক, রামু হয়ে চট্টগ্রামের দোহাজারী পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণ, মিয়ানমার সীমান্ত রেললাইন, খুলনা-মংলা বন্দরের রেললাইন, বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতু নির্মাণ এবং ঢাকা-চট্টগ্রাম হাইস্পিড রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পগুলো অধিক বিবেচনাধীন রয়েছে।’

বাংলাদেশ সরকার ৮৮টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছে। এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলের সঙ্গে বাংলাদেশ সরকার রেল যোগাযোগ স্থাপনের পরিকল্পনা করেছে বলে জানান রেলমন্ত্রী। এ ছাড়া যেসব করিডর দিয়ে রেল যোগাযোগ বন্ধ ছিল সেগুলো পুনরায় চালু করা হবে বলেও জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ২১ সেপ্টেম্বর আরও একটি বন্ধ করিডর চালু করা হবে চিলাহাটিতে। এসব করিডর চালু হওয়ার ফলে প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে আমাদের রেল যোগাযোগ বৃদ্ধি পাবে।

কর্মশালায় প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোফাজ্জল হোসেন, রেলের মহাপরিচালক মো. শামসুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এইউএ/এসআর/পিআর