ডিজিটাল রূপান্তরে প্রকাশনা বিলুপ্ত হবে না : মোস্তাফা জব্বার

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৪৩ এএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, প্রকাশনা হচ্ছে মানব সভ্যতার বাহক। ডিজিটাল রূপান্তরের কারণে কাগজ থাকুক বা না থাকুক, যেকোনো মাধ্যমেই হোক প্রকাশনা শিল্প টিকে থাকবে। এটা বিলুপ্ত হওয়ার প্রশ্নই আসে না।

বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বাংলা একাডেমিতে কবি শামসুর রহমান মিলনায়তনে সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির উদ্যোগে সৃজনশীল বই বিষয়ক সপ্তাহব্যাপী প্রশিক্ষণ ২০১৯ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের প্রকাশনা শিল্পের বড় দুর্বলতা হচ্ছে আমাদের বইগুলোর পরিশীলিত সম্পাদনা হয় না। সম্পাদনার ক্ষেত্রে পরিশীলিত রূপটি গড়ে তুলতে প্রকাশকদের উদ্যোগী ভূমিকা গ্রহণের আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী, বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সভাপতি ফরিদ আহমেদ এবং অনন্যা পাবলিকেশন্সের সত্ত্বাধিকারী মনিরুল হক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, প্রকাশনার পেশাদারিত্ব উন্নয়নে প্রশিক্ষণ একটি নতুনমাত্রা যোগ করবে। প্রকাশনা এখন আর কেবল অক্ষর নির্ভর নেই। প্রকাশনায় অক্ষরের সাথে চিত্র যোগ হয়েছে এবং অক্ষরের সাথে চিত্রের ভেরিয়েশন যুক্ত হয়েছে।

তিনি বলেন, মুদ্রণ ও প্রকাশনা শিল্পে আমরা পিছিয়ে ছিলাম। ১৯৭২ সালের আগে বাংলা মুদ্রণ ও প্রকাশনা অথবা সাহিত্যের রাজধানী ছিল কলকাতা। বাহাত্তর পরবর্তী রূপান্তরের ফলে ২০১৯ সালে আমরা বলতে পারি বাংলা ভাষার রাজধানী, প্রকাশনা ও মুদ্রণ শিল্পের রাজধানী এখন ঢাকা। বাংলা একাডেমির প্রতিবছরের একুশের বই মেলা তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ বলে উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে বক্তারা দেশের মুদ্রণ ও প্রকাশনা শিল্পের অতীত পটভূমি বর্ণনা করে বলেন, যতদিন বাংলা ভাষা থাকবে ততদিন কম্পিউটারে বাংলা ভাষা উদ্ভাবনের জন্য মোস্তাফা জব্বারের নাম উচ্চারিত হবে। বাংলা একাডেমির বই মেলায় প্রকাশিত সব বই তার তৈরি হরফ দিয়ে প্রকাশিত হওয়া পৃথিবীর ইতিহাসে একটি বিরল দৃষ্টান্ত বলে উল্লেখ করেন তারা।

এএ/এমএসএইচ/এমএস