'ওলামা লীগই সর্বপ্রথম জুয়ার বিরুদ্ধে কথা বলেছে'

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:২৩ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০১৯

ওলামা লীগই সর্বপ্রথম জুয়ার বিরুদ্ধে বলেছে দাবি করে দলটির নেতারা বলছেন, ওলামা লীগের সে প্রতিবাদ আমলে নিলে আজকের অবস্থা হতো না। গত ২১ জানুয়ারি ওলামা লীগই সর্বপ্রথম জুয়ার বিরুদ্ধে কথা বলে। ওলামা লীগের সে প্রতিবাদ আমলে নিলে আজকের অবস্থা হতো না।

আজ (রোববার) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগসহ সমমনা ১৩টি সংগঠনের আয়োজনে মানববন্ধনে বক্তারা এসব কথা বলেন।

তারা বলেন, বর্তমানে দেশে শিশু-কিশোররাও পর্নোগ্রাফিতে ভয়ঙ্কর আসক্ত। সারা দেশে হাজার হাজার সন্ত্রাসী কিশোর গ্যাংদের অস্তিত্ব ধরা পড়ছে। মারাত্মকহারে বেড়ে চলছে খুন-ধর্ষণ। অন্যদিকে দুর্নীতি, জুয়ায় সয়লাব সারাদেশ। পাশাপাশি দায়িত্বহীনতা ভেজাল, মজুদদারী, অনিয়ম আর বিশৃঙ্খলায় বিপর্যস্ত সারাদেশ ও জনগণ। অথচ ৯৮ ভাগ মুসলমানের দেশে এমনটি হওয়ার কথা ছিল না। যদি মুহাম্মদ (সা.)-এর জীবনী যথাযথভাবে পালন করা হতো তবে সবার মাঝে ইসলামি চিন্তা চেতনা আসতো। একই সঙ্গে দেশে পাপাচার, অনাচার, অনিয়ম, ভেজাল ও দুর্নীতি বন্ধ হতো।

সকল শ্রেণির পাঠ্য পুস্তকে হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর জীবনী অন্তর্ভুক্তি বাধ্যতামূলক করার দাবি জানায় বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগ। একই সঙ্গে হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর বিরুদ্ধে মানহানিকর বক্তব্য, লেখা, প্রকাশনা, টিভি অনুষ্ঠান, রেডিও অনুষ্ঠান এবং ইন্টারনেটে স্ট্যাটাসসহ যেকোন বিষয় প্রচার, প্রকাশ ও প্রদানকারীর সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিও জানানো হয় সংগঠনের পক্ষ থেকে।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মুহম্মদ আখতার হুসাইন বুখারী, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান শেখ শরীয়তপুরী, সম্মিলিত ইসলামী গবেষণা পরিষদের সভাপতি আব্দুস সাত্তার, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল জলিল প্রমুখ।

এএস/এনএফ/এমএস