বাংলাদেশিরা নিউইয়র্কে বড় অবদান রেখে চলেছে : সিনেটর

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২৩ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০১৯

বাংলাদেশিরা নিউইয়র্ক সিটিতে বড় অবদান রেখে চলেছেন বলে মন্তব্য করেছেন নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য সিনেটর লুইস সেপুলভেদা।

রোববার (২০ অক্টোবর) সংসদ ভবনে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে ৫ সদস্যের প্রতিনিধি দল সৌজন্য সাক্ষাৎকালে একথা বলেন তিনি।

সিনেটর লুইস সেপুলভেদা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে নিউইয়র্কে বসবাসরত বাংলাদেশ সম্প্রদায়ের হয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। এ কার্যক্রম আরও কার্যকর ও গঠনমূলক পদ্ধতিতে অব্যাহত রাখতে বাংলাদেশ সম্পর্কে জানতে সফরে এসেছি।

প্রতিনিধি দলের অন্য সদস্যরা হলেন, সিনেটর জন ল্যু, জেমস স্কুফিস, লিরয় কমরি, কেভিন এ পার্কার এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সাক্ষাৎকালে তারা শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিনিময়, বাংলাদেশের উন্নয়ন, বাণিজ্য প্রসার, নারী ক্ষমতায়ন, তৈরি পোশাকসহ বিভিন্ন বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, বাংলাদেশের রয়েছে হাজার বছরের সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য। বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা যুক্তরাষ্ট্রে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার জন্য বিভিন্ন স্কলারশিপ ও সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধির অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, নিউইয়র্কে অবস্থানরত বাংলাদেশিরা সে দেশের শিক্ষা ও সংস্কৃতিতে অবদানের পাশাপাশি অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা রেখে চলেছে। এ সময় তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশের শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিনিময়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

তিনি বাংলাদেশে নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, কর্ণফুলী ট্যানেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, ১০০ ইকোনমিক জোন, বিদ্যুৎ উৎপাদন ২১ হাজার মেগাওয়াটে উন্নীতকরণসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন। এসব প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নতুন বাংলাদেশ উপহার দিয়েছেন বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এ সময় প্রতিনিধি দল বাংলাদেশের সঙ্গে শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিনিময় ও বাংলাদেশি কমিউনিটির জন্য তৈরি পোশাক ও খাদ্যপণ্য আমদানির আগ্রহ প্রকাশ করেন।

এইচএস/এএইচ/এমএস