বাংলাদেশ বেতারে দীর্ঘদিনের পদোন্নতি জট নিয়ে ক্ষোভ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২৮ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০১৯

বাংলাদেশ বেতারে কর্মরত বিসিএস (তথ্য) ক্যাডারের কর্মকর্তাদের দীর্ঘদিন যাবৎ পদোন্নতি জটের খবরে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। আর সুপার নিউমারারি পদোন্নতির মাধ্যমে জট নিরসনে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করতে মন্ত্রণালয়ের কাছে সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়াও বৈঠকে তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির পক্ষ থেকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে একটি অনুরোধপত্র পাঠানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

রোববার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির ৪র্থ বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়। কমিটির সভাপতি হাসানুল হক ইনুর সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য ও তথ্যমন্ত্রী ড. মোহাম্মদ হাছান মাহমুদ, কাজী কেরামত আলী, আকবর হোসেন পাঠান (ফারুক), খঃ মমতা হেনা লাভলী ও সালমা চৌধুরী অংশ নেন। আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান অংশ নেন।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ বেতারে কর্মরত বিসিএস (তথ্য) ক্যাডারের কর্মকর্তারা প্রমোশন বিষয়ে জনপ্রশাসন ও তথ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বার বার বৈঠক করে সিদ্ধান্ত হলেও কেন তা বাস্তবায়িত হচ্ছে না- এমন প্রশ্ন রেখেছে কমিটি। প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর দারস্থ হবার সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বৈঠকে।

বৈঠকে আলোচনায় উঠে আসে, আগে এক সময় সব টেলিভিশন চ্যানেলের ওপর লাইসেন্স ফি ছিল পরে তা উঠে যায়।

টেলিভিশন সেটের ওপর লাইসেন্স ফি পুনঃধার্যের বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে একটি প্রস্তাব কমিটির নিকট উপস্থাপনের সুপারিশ করে কমিটি।

এছাড়াও কমিটিতে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সাথে সরকারি-বেসরকারি টেলিভিশনের সংযোগ স্থাপন এবং সম্প্রচারের ক্ষেত্রে চ্যানেল ক্রমধারায় দেশি চ্যানেলসমূহকে অগ্রাধিকার দেয়ার বিষয়ে আলোচনা করা হয়। এসময় কমিটি দেশি চ্যানেলগুলোকে অগ্রাধিকার দেয়ার পরামর্শ দিয়েছে।

তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল মালেক, বাংলাদেশ বেতার ও বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

এইচএস/এসএইচএস/জেআইএম