বন্যপ্রাণীর চামড়া বিক্রির অপরাধে দুই ব্যবসায়ীর জেল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২০ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০১৯

অবৈধভাবে বন্যপ্রাণীর চামড়া ও ট্রফি দিয়ে তৈরি বিভিন্ন আসবাবপত্র বিক্রির অপরাধে রাজধানীর পরিবাগ সুপার মার্কেটের দুই ব্যবসায়ীকে এক বছর করে কারাদণ্ড ও এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার বিকেল ৪টার দিকে অভিযান পরিচালনা করে বন বিভাগের ওয়াইল্ডলাইফ ক্রাইম কন্ট্রোল (বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন) ইউনিট। অভিযান পরিচালনায় সহযোগিতা করে র‌্যাব-৩ ব্যাটালিয়নের একটি দল। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম।

অভিযানকালে চিতাবাঘসহ ১০ প্রজাতির বিপন্ন বন্যপ্রাণীর ২৮৮টি চামড়া ও ট্রফি জব্দ করে বন অধিদফতর।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- পরিবাগ সুপার মার্কেটের ক্রাপস কর্ণার নামে দোকানের মালিক সহোদর হুমায়ুন কবির ও মো. মমিনুল হক।

Rab-2.jpg

অভিযান শেষে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম জাগো নিউজকে বলেন, বন্যপ্রাণী ধরা, মারা, খাওয়া, ক্রয়-বিক্রয়, পাচার, দখলে রাখা বা শিকার করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। যারা বিক্রি করবে এবং কিনবে উভয়ই অপরাধী। বন্যপ্রাণী দেশের সম্পদ, জীবন, জীবিকা ও পরিবেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এই দুই ব্যবসায়ী বন্যপ্রাণীর চামড়া সংগ্রহ, মজুত, বিক্রি এবং চামড়া দিয়ে তৈরি পণ্য বিক্রি করে আসছিলেন, যা আইনত দণ্ড। দুজনকেই এক বছর করে কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার করে এক লাখ টাকা জমিরানা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, অভিযানকালে চিতাবাঘের চামড়া একটা, লজ্জাবতি বানরের দুটি, হরিণের শিং একটা, গুইসাপ ২২৭, সাপের ২৩টা, হরিণের ৩২টা, মেছো বাগের একটা, বন বিড়ালের একটা, সামুদ্রিক প্রবালের তিনটা চামড়া জব্দ করা হয়।

জেইউ/জেএইচ/এমএস