‘দুদককে এখন আর কেউ দন্তহীন বাঘ বলার সাহস পায় না’

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:১৪ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০১৯

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান বলেছেন, দুদককে এখন আর কেউ দন্তহীন বাঘ বলার সাহস পায় না। এটিকে এখন আর কামড় (রূপক অর্থে) দেয়া লাগে না। নখের আঁচড়েই দুর্নীতিবাজরা ক্ষত-বিক্ষত হচ্ছে। সাধারণ মানুষের উপকারের জন্যই দুদক এত কঠোর হচ্ছে।

বুধবার (২৩ অক্টোবর) নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা মিলনায়তনে দুদকের উদ্যোগে উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন দফতরের সরকারি পরিষেবা নিয়ে গণশুনানি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন

দুদক কমিশনার বলেন, এই এলাকায় জমি-জমা সংক্রান্ত অপরাধই বেশি। জমি-জমার অপরাধ জগতের সঙ্গে যে বা যেসব কর্তাব্যক্তিরা জড়িত আছেন, তারা সাবধান হোন। কেউ-ই ছাড় পাবেন না। আমাদের এই বার্তাকে কথার হুঙ্কার মনে করবেন না। ভুল করলে চড়া মূল্য দিতে হবে। মনে রাখবেন, দুর্নীতি সংক্রান্ত অপরাধ কখনই তামাদি হয় না। আমরা সরকার ঘোষিত দুর্নীতির বিরুদ্ধে শূন্য সহিষ্ণুতার নীতি বাস্তবায়ন করবই। এটাই আমাদের দৃঢ় অঙ্গীকার।’

তিনি বলেন, ‘গণশুনানিতে প্রতিটি অভিযোগ শোনা হবে এবং প্রতিটি অভিযোগ নিষ্পত্তি করা হবে। সরকারি কর্মকর্তারা পরিষেবা প্রদানের ক্ষেত্রে ঘুষ দাবি করলে কমিশনকে জানাবেন। কমিশন ফাঁদ পেতে এদেরকে গ্রেফতার করবে।’

গণশুনানিতে উপজেলা পোস্ট অফিস, উপজেলা পরিষদ, পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সাব-রেজিস্ট্রারের কার্যালয়, প্রাণিসম্পদ বিভাগ, নির্বাচন কমিশন, আনসার ও ভিডিপি অফিস, সহকারী কশিনার (ভূমি) অফিস, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়, ভূমি কার্যালয়ের বিভিন্ন অনিয়ম, সেবা প্রদানে দীর্ঘসূত্রিতা ও হয়রানির প্রায় ১১০টি অভিযোগ উত্থাপিত হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বাবুর্চি আব্দুল গনির বিরুদ্ধে চিকিৎসা সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে অনৈতিকভাবে অর্থ গ্রহণের অভিযোগের বিষয়টি আমলে নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে বদলির নির্দেশ দেন দুদক কমিশনার। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আব্দুল গনিকে ৭ দিনের মধ্যে বদলি করবেন মর্মে প্রকাশ্যে অঙ্গীকার করেন। এ ছাড়া পল্লীবিদ্যুৎ, ভূমিসহ অধিকাংশ অভিযোগ দ্রুত নিষ্পত্তির নির্দেশ দেন কমিশনার। বেশকিছু অভিযোগ তাৎক্ষণিকভাবে নিষ্পত্তিও করা হয়।

এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাবেক সংসদ সদস্য কে এম সফিউল্লাহ, নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. জসিমউদ্দীন, পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ, দুদক পরিচালক মো. আক্তার হোসেন প্রমুখ।

এমইউ/এসআর/এমএস